৭ ভাদ্র  ১৪২৬  রবিবার ২৫ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অনায়াসে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়। রবিবার একদিনের সিরিজে দ্বিতীয় ম্যাচে নামার আগে বিরাট কোহলিদের ভাবনায় এখন শুধুই বৃষ্টি। গায়ানায় প্রথম ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেস্তে যায়। টস জিতে বিরাট আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। কিন্তু মাত্র ১৩ ওভার খেলা হওয়ার পর বৃষ্টি নামে। তারপর আর ম্যাচ খেলা সম্ভব হয়নি। দ্বিতীয় ম্যাচে নামার আগে ভারতীয় দল বৃষ্টি নিয়ে চিন্তায় রয়েছে। আসলে গোটা দিন ড্রেসিংরুমে বসে থাকতে আর কারই বা ভাল লাগে। তাই প্রত্যেকের এখন একটাই প্রার্থনা-রবিবার যেন বৃষ্টিতে ম্যাচটা ভেস্তে না যায়।

[আরও পড়ুন: ডোপ বিতর্কের ধাক্কা, চরম মানসিক অবসাদে ভুগছেন পৃথ্বী শ]


বিরাটদের জন্য সুখবর রয়েছে। রবিবার ত্রিনিদাদের আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, বৃষ্টির তেমন সম্ভাবনা নেই। যদিও মেঘলা আবহাওয়া থাকবে। এই ম্যাচে মনে হয় না ভারতীয় দল কোনও পরিবর্তন করবে। প্রথম ম্যাচে তিন পেসার মহম্মদ সামি, ভুবনেশ্বর কুমার আর খলিল আমহেদকে নিয়ে নেমেছিলেন বিরাটরা। সঙ্গে দুই স্পিনার হলেন-রবীন্দ্র জাদেজা আর কুলদীপ যাদব। যদিও খলিল খুব ভাল বল করতে পারেননি। তিন ওভারে ২৭ রান দিয়েছিলেন। রবিবার ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট তাঁর বদলে অন্য কাউকে টিমে নিয়ে আসছেন বলে কোনও খবর নেই। পিচে স্পিন থাকলে অবশ্যে চাহাল আসতে পারেন দলে।

[আরও পড়ুন: সিনিয়র দলে জায়গা না পেয়ে হতাশ? কী বললেন ডাবল সেঞ্চুরির মালিক শুভমান?]

মেঘলা আবহাওয়া থাকলে টস জিতলে বিরাট হয়তো আবারও আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্তই নেবেন। ক্রিস গেইল আগের ম্যাচে রান পাননি। ৩১ বলে খেলে চার রান করে আউট হন কুলদীপ যাদবের বলে। রবিবারও ইউনিভার্স বস-কে দ্রুত আউট করতে চান বিরাটরা। গেইল শুরুতে আউট হলে ওয়েস্ট ইন্ডিজও অনেকটা যে চাপে পড়বে, সেটা বুঝতে গেলে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ হতে হবে না।

ম্যাচের ফলাফলের দিকে ভারতীয় সমর্থকদের যত না নজর থাকবে, তার থেকে বেশি নজর থাকবে তরুণদের দিকে। চার নম্বরে খেলার সুযোগ পেতে চলেছেন শ্রেয়স আয়ার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শ্রেয়স অবশ্য নতুন নন। আগেও খেলেছেন জাতীয় দলের জার্সিতে। তবে, এবার তাঁকে স্থায়ীভাবে চার নম্বরের জন্য ভাবা হচ্ছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে শেষ দু’ম্যাচে তাই তিনি চাইবেন ভাল রান পেতে। অন্যদিকে, এই দুটি ম্যাচই সম্ভবত শেষ সুযোগ হতে চলেছে কেদার যাদবের জন্য। তিনি তেমন কিছু করতে না পারলে চিরতরে জাতীয় দলে খেলার আশা শেষ হয়ে যেতে পারে তাঁর। এদিকে, এই ম্যাচে নামার আগে জাভেদ মিয়াদাঁদের রেকর্ড ভাঙার দোরগোড়ায় বিরাট কোহলি। আর ১৯ রান করলেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে কোনও সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ব্যাটসম্যান হয়ে যাবেন তিনি। আগে এই রেকর্ড ছিল পাকিস্তানের জাভেদ মিয়াদাঁদের দখলে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং