BREAKING NEWS

১৪  আষাঢ়  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

IPL 2022: রিঙ্কু সিং কি নো বলে আউট হয়েছেন? ভাইরাল ভিডিও ঘিরে হুলুস্থুল সোশ্যাল মিডিয়ায়

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: May 19, 2022 1:37 pm|    Updated: May 19, 2022 1:37 pm

IPL 2022: Was Rinku Singh dismissed off a no-ball, controversy erupts | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২১১ রান তাড়া করে মাত্র ২ রানে হার। রিঙ্কু সিংয়ের (Rinku Singh) অতিমানবীয় ইনিংস সত্ত্বেও আইপিএল থেকে ছিটকে যাওয়া। এই ব্যর্থতা যেন কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না কেকেআর সমর্থকরা। আর সম্ভবত সেকারণেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোরাফেরা করছে নানারকম ষড়যন্ত্রের তত্ত্ব। নাইট সমর্থকদের একটা বড় অংশের দাবি, বৃহস্পতিবার লখনউয়ের বিরুদ্ধে কেকেআর (KKR) হারেনি। হারিয়ে দেওয়া হয়েছে। কারণ, শেষ ওভারে রিঙ্কু সিং যে বলটিতে আউট হলেন, সেটি আসলে নো বল ছিল। অন্তত থার্ড আম্পায়ারের বলটি খতিয়ে দেখা উচিত ছিল।

সোশ্যাল মিডিয়ায় বৃহস্পতিবারের ম্যাচে রিঙ্কুর আউট হওয়ার একটি ভিডিও (ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল) ঘুরে বেড়াচ্ছে। যাতে দেখা যাচ্ছে ওই বলটি করার সময় পপিং ক্রিজের উপরেই রয়েছে লখনউ বোলার মার্কস স্টয়নিসের সামনের পা। কিন্তু ক্রিকেটের নিয়ম বলে, বল করার সময় বোলারের সামনের পায়ের অন্তত কিছুটা অংশ পপিং ক্রিজের ভিতরে থাকতে হয়। নাইট সমর্থকদের দাবি, রিঙ্কুর উইকেট পাওয়ার বলটিতে স্টয়নিসের পায়ের কোনও অংশ পপিং ক্রিজের পিছনে ছিল না।

[আরও পড়ুন: জঙ্গিদের অর্থসাহায্যের অভিযোগ, বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা ইয়াসিন মালিককে দোষী সাব্যস্ত করল আদালত]

যদিও, এ নিয়ে সরকারিভাবে নাইটরা এখনও মুখ খোলেনি। তাছাড়া নতুন নিয়ম অনুযায়ী এখন সব বলই থার্ড আম্পায়ার চেক করে দেখেন। অর্থাৎ ধরে নেওয়াই যায় যে স্টয়নিসের ওই বলটিও ‘নো বল’ বলে মনে হয়নি থার্ড আম্পায়ারের। সুতরাং এ নিয়ে বিতর্কের কোনও অবকাশ থাকার কথা নেই। তাছাড়া কেকেআরের আইপিএল অভিযান এবারের মতো শেষ। তাই আর বিতর্ক বাড়াতে চায় না কেকেআরও।

[আরও পড়ুন: কেরলের স্থানীয় নির্বাচনে জয় বামেদের, তবে কাঁটা হয়ে রইল বিজেপির উত্থান]

আইপিএল (IPL 2022) থেকে ছিটকে যাওয়ার পর কেকেআর অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ারও বলছিলেন, হারলেও দুঃখে নেই তিনি। শ্রেয়সের বক্তব্য, “আমার এতটুকু খারাপ লাগছে না। কারণ, আজকের ম্যাচটা চিরকাল মনে থেকে যাবে। আজ পর্যন্ত আমার খেলা অন্যতম স্মরণীয় ম্যাচ। যে ভাবে আমার টিম নিজেদের কঠিন চরিত্রকে বার করে এনেছে এই ম্যাচে, দেখার মতো। রিঙ্কু যে ভাবে শেষ দিকে খেলল, অসাধারণ। শুধু শেষ দু’টো বল যখন বাকি, টাইমিংটা ওর ঠিকঠাক হল না। খুব ভেঙে পড়েছে রিঙ্কু। ভেবেছিল, ও ম্যাচটা শেষ করে আসবে। আমরাও ভেবেছিলাম যে, রিঙ্কু আজ নায়ক হয়ে যাবে। কিন্তু তার পরেও বলব, যে ইনিংসটা রিঙ্কু খেলেছে এ দিন, তার জন্য আমি গর্বিত।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে