BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

চার্চিল হারায় অ্যাডভান্টেজে মোহনবাগান, লক্ষ্মীবারে জিতলেই আই লিগের রং সবুজ-মেরুন!

Published by: Sulaya Singha |    Posted: March 4, 2020 9:29 pm|    Updated: March 4, 2020 9:29 pm

Mohun Bagan is likely to be champion if they will win against Chennai

দুলাল দে: বৃহস্পতিবারই কি আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে মোহনবাগান? এমনই আবহ তৈরি হয়ে গিয়েছে। আসলে বুধবার ট্রাউয়ের কাছে চার্চিল ব্রাদার্স হারতেই জল্পনা আরও জোরদার হয়েছে। লক্ষ্মীবারে চেন্নাই সিটিকে হারালে আই লিগ ঘরে তোলা কার্যত নিশ্চিত হয়ে যাবে মোহনবাগান। আই লিগের ইতিহাসে যা একটা স্মরণীয় মুহূর্ত হয়ে থাকবে। ছ’টা ম্যাচ বাকি থাকতে কোনও দল এর আগে এভাবে আই লিগ জেতা প্রায় নিশ্চিত করে ফেলতে পারেনি

বুধবার দল বিকেলে প্র্যাকটিস করলেও সাত-সকালে সাংবাদিক বৈঠক সারেন মোহনবাগান কোচ কিবু ভিকুনা। তাঁর সাফ জবাব, “এইভাবে তো কোনও ম্যাচ খেলতে নামার আগে কেউ ভাবে না। চার্চিল-ট্রাউ ম্যাচ কী হবে, আমরা কাল জিতব কি না, এসব ভেবে লাভ নেই। আমার একটাই লক্ষ্য, বৃহস্পতিবার চেন্নাইকে হারিয়ে লিগ জয়ের লক্ষ্যে আরও একটু এগিয়ে যাওয়া। এর বেশি কিছু নয়।”

[আরও পড়ুন: প্রসাদকে পিছনে ফেলে টিম ইন্ডিয়ার নয়া নির্বাচক প্রধান হলেন সুনীল যোশী]

চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে ড্যানিয়েলকে খেলাবেন কিনা এখনও ঠিক করেননি তিনি। তবে বাড়তি ঝুঁকি নেবেন না। বিপক্ষ চেন্নাইকে সমীহ করছেন কিবু। সেই সঙ্গে কোচের পরিষ্কার বক্তব্য, “বাংলাদেশে খেলতে গিয়ে আমাদের আই লিগ প্রস্তুতি শুরু হয়েছিল ঠিকই, বলতে পারেন আমরা জুলাই মাস থেকে আই লিগের প্রস্তুতি নিতে শুরু করে দিই। তবে একটা কথা মানতে হবে, চেন্নাইয়ের দলটাকে হালকাভাবে নিলে হবে না। এই দলে কাটসুমির মতো বেশ কয়েকজন অভিজ্ঞ ফুটবলার রয়েছে। তাই খেলার শুরু থেকে ওদের গুরুত্ব না দিলে সমূহ বিপদ।”

চেন্নাই কোচ আকবর নওয়াজ বুঝিয়ে দেন, কেন তাঁরা মোহনবাগানকে সমীহ করছেন। “যাদের বিপক্ষেই মোহনবাগান খেলতে নামছে, তাদেরকেই হারিয়ে দিচ্ছে। ফলে ওরা যেমন এগিয়ে যাচ্ছে, উলটোদিকে পিছিয়ে পড়ছে প্রতিপক্ষ দলগুলো। আসলে বাবা দলে যোগ দেওয়ার পর পুরো ছবিটাই পালটে গিয়েছে মোহনবাগানের।” অকপট স্বীকারোক্তি চেন্নাই কোচ আকবরের। বৃহস্পতিবার জিততে পারলে ১৫ ম্যাচে সবুজ-মেরুনের পয়েন্ট গিয়ে দাঁড়াবে ৩৮-এ। চার্চিল এদিন হেরে যাওয়ায় ১৪ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ২০। ১৫ ম্যাচ খেলে ২৩ পয়েন্টে দু’নম্বরে পাঞ্জাব এফসি। তবে দৌড়ে সবচেয়ে বেশি উজ্জ্বল রিয়াল কাশ্মীর। ১৪ ম্যাচে তাদের ঝুলিতে ২২ পয়েন্ট। অর্থাৎ কাশ্মীর সবকটি ম্যাচ জিতলে ৪০ পয়েন্ট পাবে। সেক্ষেত্রে মোহনবাগান বাকি পাঁচ ম্যাচে হারলেই একমাত্র লিগ জয়ের অঙ্কটা বদলাতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে তাই কোনও বড়সড় অঘটন না ঘটলে লিগের রং সবুজ-মেরুন হওয়া সময়ের অপেক্ষা।

[আরও পড়ুন: টি-২০ বিশ্বকাপে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পুরস্কার, আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে শেফালি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে