৭ শ্রাবণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

স্টাফ রিপোর্টার: সোমবার থেকে মোহনবাগানের নতুন টেন্টের কাজ শুরু হয়ে যাচ্ছে। ক্লাবের সাধারণ বার্ষিক সভায় এমন কথাই জানালেন সচিব টুটু বোস।

গতবছর শতাব্দী প্রাচীন ক্লাবে এই সাধারণ বার্ষিক সভাকে ঘিরে দেখা গিয়েছিল ধুন্ধুমার কান্ড। প্রাক্তন সচিব অঞ্জন মিত্র সেদিন তদানীন্তন সভাপতি টুটু বোসকে চেয়ার পর্যন্ত দেওয়ার প্রয়োজন মনে করেননি। শুক্রবার অবশ্য ক্লাব সচিব ‘প্রিয়বন্ধু’ অঞ্জন মিত্রকে সম্মান জানিয়ে বললেন, “প্রাক্তন সচিব অঞ্জন মিত্র হাসপাতালে অসুস্থ হয়ে ভরতি। ওর মতো ছেলেকে সবসময় ক্লাবের প্রয়োজন। আপনারা সকলে তাঁর আরোগ্য কামনা করে প্রার্থনা করুন।” ততক্ষণে সচিবের এই মন্তব্যে করতালিতে ফেটে পড়েছে বার্ষিক সভা। নির্বিষ সভা। দু’বছর আগেকার অ্যাকাউন্টস পাশ হল। যেখানে ক্ষতির পরিমাণ দেখানো হয়েছে প্রায় ৩৭ লাখ টাকা। আসলে
অ্যাকাউন্টস পাশ করার পদ্ধতিতে একবছর পিছিয়ে আছে মোহনবাগান। সেই ২০১৮-১৯-এর অ্যাকাউন্টস এবছর অক্টোবর-নভেম্বর মাসে পাশ করিয়ে নেওয়া হবে বলে জানিয়ে দিলেন অর্থসচিব দেবাশিস দত্ত।

[আরও পড়ুন: কোপার শেষ চারে মেসিদের প্রতিপক্ষ ব্রাজিল, পেনাল্টি শুটআউটে জয়ী চিলি]

মঞ্চে বসেছিলেন সভাপতি গীতানাথ গঙ্গোপাধ্যায়, সচিব টুটু বোস, সহ-সভাপতি বলরাম চৌধুরি, কোষাধ্যক্ষ সত্যজিৎ চট্টোপাধ্যায়। তবে সকলের নজর কেড়ে নিলেন অর্থসচিব দেবাশিস দত্ত। যখন তিনি নাতিদীর্ঘ বক্তব্যে ফেডারেশনের তোষণ নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে উঠলেন। “আমরা কখনও চাই না, স্পনসরের কথাকে প্রাধান্য দিতে গিয়ে ক্লাবের স্বার্থকে জলাঞ্জলি দিতে। অথচ আমাদের বারবার চাপ দেওয়া হয়েছে এটিকে-র সঙ্গে যুক্ত হতে হবে। প্রথমে বলা হয়েছিল ১০ শতাংশ ক্লাবের হাতে শেয়ার রেখে বাকিটা এটিকে-কে বিক্রি করা চাই। পরে বাড়িয়ে বলা হয় এটিকে-কে ৮০ শতাংশ শেয়ার বিক্রি যেন করে দেওয়া হয়। পুরোটাই অস্বীকার করেছি। দুই প্রধানের সঙ্গে জড়িয়ে আছে কোটি কোটি মানুষের আবেগ। যে ক্লাব যাই করুক এই কমিটি অন্তত কারও হাতে মোহনবাগানকে বিক্রি করে দেবে না।” বলেন দেবাশিস দত্ত।

mohunbagan

পরক্ষণে তিনি অবশ্য জানিয়ে দেন, তিনটে সংস্থার সঙ্গে স্পনসরের ব্যাপারে কথাবার্তা চলছে। আই লিগ, আইএসএল নিয়ে ফেডারেশনের সঙ্গে ঝামেলা মিটলেই স্পনসর সমস্যা মেটার আশ্বাস দেন দেবাশিস। সভায় জানিয়ে দেওয়া হয়, গ্যালারির নিচে নতুন করে টেন্ট দু’মাসের মধ্যে তৈরি করা হবে। সেখানে দু’টি ড্রেসিংরুম, জিম-সহ আধুনিকতার স্পর্শ থাকবে ব্যাপক। পুরনো টেন্ট তখন মিউজিয়ামের রূপ নেবে। যেখানে প্রাক্তন ফুটবলারদের যাবতীয় দুষ্প্রাপ্য ছবি-সহ ব্যবহার্য জিনিসপত্র থাকবে। সভ্য-সমর্থকরা যা চাক্ষুস করবেন।

[আরও পড়ুন: বলিউড অভিনেত্রীর প্রেমে পড়েছেন কে এল রাহুল! দেখুন তো চেনেন কি না]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং