BREAKING NEWS

২১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৪ জুন ২০২০ 

Advertisement

খেলার ফাঁকে মাঠেই সন্তানকে স্তন্যদান, নেটিদুনিয়ার প্রশংসা কুড়োচ্ছে ভাইরাল ছবি

Published by: Sulaya Singha |    Posted: December 10, 2019 3:21 pm|    Updated: December 10, 2019 4:11 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কথায় বলে, যে রাঁধে সে চুলও বাঁধে। ঠিক যেমন এই ভলিবল খেলোয়াড়। সন্তান জন্ম যখন দিয়েছেন, তখন মা হিসেবে কিছু দায়িত্ব তো থেকেই যায়। আর পেশার সঙ্গে পারফেক্ট ব্যালেন্স করে যিনি মায়ের ভূমিকা পালন করতে সফল, তিনিই হয়ে ওঠেন আদর্শ নারী। মিজোরামের এই মহিলা খেলোয়াড় সেটাই করে দেখালেন। তাই তো আজ তিনি শিরোনামে।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভাইরাল হয়েছে একটি ছবি। যেখানে দেখা যাচ্ছে, মিজোরামের মহিলা ভলিবল খেলোয়াড় লালভেন্টলুয়াঙ্গি খেলার বিরতিতে মাঠে একটি চেয়ারে বসে সন্তানকে স্তন্যপান করাচ্ছেন। ফেসবুকে নিনগ্লুন হাঙ্ঘাল ছবিটি পোস্ট করেন। লিখে দেন, ছবির সোর্স লিন্ডা ছাকছুয়াক। ছবিটি পোস্ট হওয়ার পর থেকেই খেলোয়াড়কে প্রশংসায় ভরিয়েছেন নেটিজেনরা।

[আরও পড়ুন: ‘ও এখন আমার বোনের সঙ্গে বিছানায় শুয়ে’, সতীর্থর ব্যাপারে এ কী মন্তব্য ফ্যাফের!]

টুইকাম ভলিবল দলের হয়ে লেখেন ওই মহিলা। সাত মাসের সন্তানকে সঙ্গে নিয়েই দলের প্রশিক্ষণ ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন তিনি। তবে খেলার ফাঁকে সন্তানের দেখভালে কোনও ত্রুটি রাখছেন না। বিমানবন্দর কিংবা শপিং মলে স্তন্যদান নিয়ে নানা বিতর্ক এর আগে শোনা গিয়েছে। প্রকাশ্যে স্তন্যপান করানোয় মহিলাদেরই কাঠগড়ায় তোলা হয়েছে বারবার। কিন্তু ভলিবল খেলোয়াড়ের ছবি সর্বত্র প্রশংসিতই হচ্ছে। মহিলার সাহসিকতা, দায়িত্ববোধ ও আত্মত্যাগকে বাহবা জানাচ্ছেন নেটদুনিয়ার বাসিন্দারা। অনেকে বলছেন, মায়েরা এমনই হন।

ছবিটি পোস্ট করে হাঙ্ঘাল লিখেছেন, “খেলার ফাঁকে সাত মাসের শিশুকে স্তন্যপান করাচ্ছেন মা। ছবিটিকে মিজোরাম রাজ্য গেমস ২০১৯-এর ম্যাসকট করা হোক।” ইতিমধ্যেই মিজোরামের ক্রীড়ামন্ত্রী রবার্ট রোমায়িয়ার চোখেও পড়েছে ছবিটি। তিনি লালভেন্টলুয়াঙ্গির প্রশংসা করে বলেন, “প্রশংসা স্বরূপ ওকে ১০ হাজার টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।” সত্যিই, খেলার মাঠে মাতৃত্বের অনবদ্য দৃষ্টান্ত গড়লেন মহিলা। মাতৃস্নেহের এমন দৃশ্যকে কুর্নিশ।

[আরও পড়ুন: কাতার বিশ্বকাপ ও টোকিও অলিম্পিক থেকে নির্বাসন, খেলার দুনিয়ায় কলঙ্কিত রাশিয়া]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement