৪ মাঘ  ১৪২৫  শনিবার ১৯ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অনূর্ধ-১৭ ছেলেদের বিশ্বকাপের পর এবার অনূর্ধ-১৭ মেয়েদের বিশ্বকাপের আয়োজন করতে চলেছে ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন। সব ঠিকঠাক থাকলে সামনের বছর ভারতের হাতে মেয়েদের বিশ্বকাপের দায়িত্ব তুলে দেবে ফিফা।

জুনিয়র স্তরের বিশ্বকাপের ক্ষেত্রে বড়ভাবে ‘বিড’ হয় না। দেশগুলির আবেদন দেখে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেয় ফিফা। অনূর্ধ-১৭ ছেলেদের বিশ্বকাপের ক্ষেত্রে এমনই হয়েছিল। ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের কর্তারা আশা করছেন, ২০২০-তে মহিলাদের অনূর্ধ-১৭ বিশ্বকাপের দায়িত্ব পেতে ভারতের অসুবিধা হবে না। কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রকের অনুমতি মিললে ফিফা সবুজ সঙ্কেত দেবে। ফেডারেশন কর্তাদের আশা কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমতি মিলবে। এশিয়ান কাপ ঘিরে এখানে বলছেন, আইএসএল চালু হওয়ায় জাতীয় দলের মানের উন্নতি হয়েছে। ফেডারেশন সচিব কুশল দাস বা কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে পর্যবেক্ষক আইএম বিজয়ন কিংবা স্টিফেনের সহকারি ভেঙ্কটেশ, সবাই একই কথা বলছেন। তাই কলকাতার দুই প্রধান খেলুক আর না খেলুক, আইএসএল-কে দেশের এক নম্বর লিগ ঘোষণা করা হবে।।

[মরুশহরে ফের সুনীল-ঝড় উঠল না, আমিরশাহির কাছে হার ভারতের]

এই মরশুমে আইএসএল থাকলেও খাতায় কলমে আই লিগকে দেশের এক নম্বর লিগ বলে আখ্যা দিচ্ছে ফেডারেশন। পরের বছর আই লিগ নামটা উঠে গিয়ে লিগ ওয়ান হচ্ছে। তাই আইএসএল দেশের এক নম্বর লিগ হবে। বাংলার দুই প্রধানের প্রতি ফেডারেশন সহানুভূতিশীল। এবার আইএসএল শেষ হলেই দুটো দলকে নেওয়ার জন্য বিড হবে। বিডের মাধ্যমে আইএসএলে কলকাতার দুই প্রধান আসতে পারে। কিন্তু নতুন করে দাবি দাওয়া শুরু করলে ফেডারেশন কানে তুলবে না। কেন মিনার্ভার ম্যাচ টিভিতে কম দেখানো হচ্ছে? এ নিয়ে মিনার্ভা কর্তা রঞ্জিত বাজাজ গরম গরম কথা বললেও এফএসডিএল এবং ফেডারেশনের ভাবনা, লিগ ওয়ান হয়ে যাওয়ার পর টিভিতে মোট সম্প্রচারের সংখ্যা কমবে। সেক্ষেত্রে কটা ম্যাচ দেখানো হবে তা নিয়েও সন্দেহ আছে। গত বছর ৮৮টা ম্যাচ দেখানোর পর এই মরশুমে দেখানো হচ্ছে ৮০টা। কিন্তু লিগ ওয়ানে এত ম্যাচ দেখানো হবে না। তাই রঞ্জিত বাজাজ সাংবাদিক সম্মেলন করে যাই বলুন, ফেডারেশন উত্তর দিচ্ছে না। হয় ভারতীয় ফুটবলের উন্নয়নের স্রোতে গা ভাসাতে হবে। না হলে নিজেদের পথ নিজেদেরই করতে হবে। ভারতীয় ফুটবলের মূলস্রোতে থাকার জন্য কলকাতার দু’প্রধানের জন্য পথ এখনও খোলা রেখে দিতে চাইছে ফেডারেশন। এরপর যদি কেউ আইএসএল না খেলে লিগ ওয়ানে খেলে, তা নিয়ে মাথা ঘামাবে না ফেডারেশন। উলটে জাতীয় দলের উন্নতি কী ভাবে করা যায়, তা নিয়ে তাঁরা বেশি ভাবছেন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং