BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ব্রিকস সম্মেলনে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন মোদি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 16, 2016 3:25 pm|    Updated: October 16, 2016 3:25 pm

Narendra Modi branded Pakistan a

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সন্ত্রাসের ‘মাদার-শিপ’ বা মূলচক্রী হল পাকিস্তান! রবিবার ঠিক এই ভাষাতেই গোয়ায় অনুষ্ঠিত ব্রিকস সম্মেলনে পাকিস্তানকে তুলোধোনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ আন্তর্জাতিক পরিসরে পাকিস্তানকে সন্ত্রাস প্রসঙ্গে কোণঠাসা করতে এটাই মোদির নয়া অস্ত্র বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ৷

যদিও স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে আজও সরাসরি পাকিস্তানের নাম একবারও মুখে আনেননি প্রধানমন্ত্রী৷ ব্রাজিল, রাশিয়া, চিন ও দক্ষিণ আফ্রিকার রাষ্ট্রনেতাদের সঙ্গে গোলটেবিল বৈঠকে মোদি বলেন, “সন্ত্রাসের ক্রমবর্ধমান থাবা মধ্য প্রাচ্য, ইউরোপ ও দক্ষিণ আফ্রিকাকেও কড়া চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলেছে৷ সন্ত্রাসের তরবারি একদিকে যেমন ওই দেশগুলির নাগরিকদের বিপদ ডেকে আনছে, তেমনই অর্থনৈতিক শ্রীবৃদ্ধিতেও বাধা দিচ্ছে৷”

ঠিক এই প্রসঙ্গেই মোদি মন্তব্য করেন, “আমাদের উপমহাদেশে সন্ত্রাসবাদ আজ শান্তি, নিরাপত্তা ও উন্নয়নের পথে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে৷ দুঃখের সঙ্গে বলতে হচ্ছে, মাদার-শিপ অফ টেররিজম এমন একটি দেশ যারা ভারতের প্রতিবেশী৷ বিশ্বজুড়ে সমস্ত টেরর মডিউলের সঙ্গে ওই মাদার-শিপের যোগ রয়েছে৷”

এখানেই শেষ না করে উপস্থিত রাষ্ট্রনেতাদের মোদি সতর্ক করে বলেন, “ওই দেশ যে শুধু জঙ্গিদের আশ্রয়ই দেয় না, সাধারণ যুবকদের মনে হিংসা জাগিয়ে তোলে, ক্ষোভ প্রতিপালন করে৷ তারপর নিজেদের সংকীর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে ওই জঙ্গিদের লেলিয়ে দেয় বিভিন্ন দেশে৷”

এই প্রসঙ্গেই মোদির সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ব্রিকস-এর সদস্য দেশগুলিকে একজোট হওয়ার ডাক দেন৷ বলেন, “সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে এক সুরে সোচ্চার হতে হবে ব্রিকস সদস্য দেশগুলিকে৷” মোদি শেষে বলেন, “জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদের পক্ষে যারা রয়েছে, তাদের শাস্তি দিতে হবে৷”

ব্রিকস সদস্য দেশগুলির কাছে মোদি ‘কম্প্রিহেনসিভ কনভেনশন অন ইন্টারন্যাশনাল টেররিজম’ বা সিসিআইটি-র আবেদন জানিয়েছেন৷ একইসঙ্গে ছুঁয়ে গিয়েছেন সন্ত্রাসের অন্যান্য রূপগুলিকেও৷ নারী ও শিশু পাচার, সাইবার অ্যাটাক রুখতে কেন্দ্রীয় সরকার সবসময় তৎপর বলে জানিয়েছেন মোদি৷ বস্তুত, এদিন প্রধানমন্ত্রীর বডি ল্যাঙ্গুয়েজ থেকেই স্পষ্ট, উরির সেনা ছাউনিতে পাক জঙ্গি হামলার পরিপ্রেক্ষিতে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে গর্জে উঠতে কোনও আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্মকেই বাদ দেবেন না তিনি৷ তা সে চিনের জি-২০ বৈঠকই হোক বা লাওসের আসিয়ান সামিট৷

brics-2

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে