BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পেরিয়েছে ২ কোটি, তবু আশার আলো দেখাচ্ছে WHO

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 11, 2020 5:27 pm|    Updated: August 11, 2020 5:28 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পেরিয়ে গিয়েছে ২ কোটি। ৭ লক্ষ ২৮ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে এই ভাইরাসের কবলে। বিশ্বের বহু দেশে আজ ন্যূনতম স্বাস্থ্য পরিষেবা পরিষেবা পর্যন্ত দিতে পারছে না। এই ভাইরাসের প্রকোপে পড়ে বহু দেশে আজ আর্থিক সংকট। তবে, এত কিছুর মধ্যেও হতাশ হচ্ছে না বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। WHO বলছে, এখনও হতাশ হওয়ার কোনও কারণ নেই। এই ভাইরাসের সংক্রমণ রুখে দেওয়ার জন্য এখনও আমাদের হাতে যথেষ্ট সময় আছে। যদিও, ঠিক কীভাবে ভাইরাসের সংক্রমণ রোখা যাবে, তার স্পষ্ট কোনও দিশা নির্দেশ করতে পারেনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

সোমবার এক সাংবাদিক বৈঠকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ডিরেক্টর-জেনারেল টেড্রোস আধানম ঘেব্রিয়েসুস (Tedros Adhanom Ghebreyesus) অনেকটা সান্ত্বনার সুরে বললেন,”আমি জানি আপনাদের মধ্যে বহু মানুষ কষ্টে আছেন। এটা পুরো দুনিয়ার জন্য খুব কঠিন সময়। কিন্তু একটা জিনিস স্পষ্ট করে দিতে চাই, এখনও আমাদের কাছে আশাবাদী হওয়ার বহু কারণ আছে। বিশ্বের বহু প্রান্তে করোনা আজ নিয়ন্ত্রণে। দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া, নিউজিল্যান্ড, রোয়ান্ডা, ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জ, প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপপুঞ্জ, এমন বহু দেশ এই লড়াইয়ে জয়ের মুখে। আমি স্পষ্ট করে বার্তা দিতে চাই। ভাইরাসটির উপর চাপ (আরও টেস্ট, আরও সনাক্তকরণ, আরও আইসোলেশন) দিন। এর উপর যত বেশি চাপ সৃষ্টি করা যাবে। তত তাড়াতাড়ি আমরা বিধিনিষেধের শিকল ছিঁড়ে বেরিয়ে আসতে পারব।”

[আরও পড়ুন: বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন আনল রাশিয়া, প্রয়োগ করা হল পুতিনকন্যার শরীরে]

উল্লেখ্য, চিন করোনা ভাইরাসের বিপদ নিয়ে WHO-কে সতর্ক করেছিল প্রায় সাত মাস আগে। তারপর বহু ঢিলেমির অভিযোগ উঠেছে। আমেরিকা অভিযোগ করেছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাফিলতির জেরে করোনা আজ অতিমারীর আকার নিয়েছে। আবার WHO দাবি করেছে, আমেরিকা-সহ বহু দেশ তাদের দেওয়া সতর্কবার্তাকে গুরুত্ব দেয়নি। কারণ যাই হোক, করোনা আজ বিশ্বব্যাপী ত্রাস সৃষ্টি করেছে। এখনও পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে এর কবলে পড়েছেন প্রায় ২ কোটি মানুষ। বস্তুত এর বিরুদ্ধে লড়াই করার স্পষ্ট কোনও দিকনির্দেশ করতে পারেনি WHO। স্বাভাবিকভাবেই, তাঁরা যে আশা দেখাচ্ছেন, তাতে যে বিশ্ববাসীর মন গলবে না, সেটা বলাই বাহুল্য।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement