BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

কবে আসছে অক্সফোর্ডের তৈরি করোনার ভ্যাকসিন? বৃহস্পতিবারই দিন ঘোষণার জল্পনা

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: July 16, 2020 5:41 pm|    Updated: July 16, 2020 6:33 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বৃহস্পতিবার রাতেই নাকি ঘোষণা হবে অক্সফোর্ডের বিজ্ঞানীদের তৈরি করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধকের মুক্তির দিন! বুধবার এই দাবি করা হয়েছে ব্রিটেনের একটি সংবাদ সংস্থা সূত্রে। তারপরই এই বিষয়টি নিয়ে শুরু হয়েছে তুমুল জল্পনা।

ব্রিটেনের ওই সংবাদ সংস্থার দাবি, বৃহস্পতিবার রাতে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় (Oxford University) -এর প্রতিনিধিরা করোনার প্রতিষেধক (vaccine) তৈরির সহযোগী ওষুধ কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকাকে নিয়ে একটি সাংবাদিক বৈঠক করতে পারেন। আর তাতেই ইবোলার প্রতিষেধক তৈরিতে দিশা দেখানো বিজ্ঞানী ডা. সারা গিলবার্টের নেতৃত্বে তাঁরা ঘোষণা করতে পারেন এই প্রতিষেধক মুক্তির দিনক্ষণ। অক্সফোর্ডের গবেষকদের একাংশের দাবি, আগামী সেপ্টেম্বরেই করোনার ভ্যাকসিন আনার ব্যাপারে তাঁরা ১০০ শতাংশ নিশ্চিত।

[আরও পড়ুন: চাপের মুখে নতিস্বীকার পাকিস্তানের, কুলভূষণের সঙ্গে দেখা করবেন ভারতীয় কুটনীতিবিদরা ]

ইতিমধ্যে প্রথম ধাপের ট্রায়ালে ইতিবাচক ফল পাওয়া গিয়েছে বলেও সূত্রের খবর। বর্তমানে অক্সফোর্ডের বিজ্ঞানীদের তৈরি প্রতিষেধকটির তৃতীয় তথা শেষ পর্যায়ের ট্রায়াল চলছে। এই প্রতিষেধকটি করোনার বিরুদ্ধে দীর্ঘমেয়াদী প্রতিরোধ গড়তে সক্ষম বলেও দাবি তাঁদের। অক্সফোর্ডের প্রতিষেধক গবেষণার প্রধান ডা. সারা গিলবার্টের মতে, তাঁদের তৈরি একটি প্রতিষেধক অন্তত বছরখানেক সক্রিয় থাকবে। সবথেকে আগে অবশ্য প্রতিষেধকের সুরক্ষার বিষয়টিতেই জোর দিচ্ছেন অক্সফোর্ডের বিজ্ঞানীরা। এর জন্যই এবিষয়ে কোনও রকম তাড়াহুড়ো করতে চাইছেন না।

এদিকেই মঙ্গলবারই তাদের তৈরি করোনা প্রতিষেধকের হিউম্যান ট্রায়ালে সাফল্য পাওয়া গিয়েছে বলে দাবি করেছে মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা মডার্না (Moderna)। তাদের তরফে জানানো হয়েছে, যাঁদের দু’টি ডোজ দেওয়া হয়েছিল, তাঁদের শরীরে করোনা জয়ীদের গড় অ্যান্টিবডির থেকেও বেশি অ্যান্টিবডি মিলেছে। প্রতিষেধকের ডোজের ফলে তাঁদের সামান্য ঝিমুনি ও মাথা ব্যথার মতো কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা গেলেও তাঁরা ভাল আছেন।

[আরও পড়ুন: চাবাহার রেল প্রকল্প থেকে ভারতকে বাদ দেওয়ার খবর ভিত্তিহীন, জানাল ইরান]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement