BREAKING NEWS

৯ কার্তিক  ১৪২৮  বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

COVID-19: শেষ হবে আতঙ্কের দিন! মারণক্ষমতা হারাচ্ছে করোনা ভাইরাস, দাবি গবেষকদের

Published by: Biswadip Dey |    Posted: September 24, 2021 1:22 pm|    Updated: September 24, 2021 1:58 pm

COVID-19 virus likely to get weaker and become a common cold, says Oxford-AstraZeneca vaccine creator। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কবে বিদায় নেবে করোনা ভাইরাস (Coronavirus)? কবে মুক্তি মিলবে অতিমারীর কবল থেকে? এই প্রশ্ন মাসের পর মাস ধরে ঘুরে বেরিয়েছে গোটা বিশ্বেই। অবশেষে স্বস্তি মিলল গবেষকদের আশ্বাসে। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার (Oxford-AstraZeneca) গবেষকদের দাবি, এবার ক্রমেই সাধারণ সর্দিকাশির ভাইরাসের মতোই হয়ে যাবে করোনা ভাইরাস। তার আর নতুন করে আরও প্রাণঘাতী হয়ে ওঠার সম্ভাবনা নেই।

‘ডেইলি মেল’-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, গবেষক ও অধ্যাপক ডেম সারা গিলবার্ট, যিনি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকাটি উদ্ভাবন করেছেন তিনিই আশ্বস্ত করছেন সকলকে। জানিয়েছেন, ফের নতুন কোনও মারাত্মক স্ট্রেন তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা প্রায় নেই।

[আরও পড়ুন: ব্রিটেনে নিলামে উঠল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আঁকা ছবি, বিক্রি হল পাঁচ কোটি টাকায়]

ঠিক কী বলেছেন তিনি? ‘রয়্যাল সোসাইটি অফ মেডিসিন’-এর এক সভায় এবিষয়ে বক্তব্য রাখেন তিনি। তাঁর কথায়, ”সার্স-কোভ-২ ভাইরাসের নতুন করে আরও বিপজ্জনক স্ট্রেন সৃষ্টি করার ক্ষমতা আর নেই। তবে এটা একটা সংক্রামক ভাইরাস হিসেবে থেকেই যাবে।” তিনি জানিয়েছেন, এযাবৎ মানবশরীরে চারটি ভিন্ন ধরনের করোনা ভাইরাসের সন্ধান মিলেছে। কোভিড-১৯ ভাইরাসটিও তাদের মতোই সাধারণ সর্দিকাশির ভাইরাস হয়ে যাবে।

যদিও সেটা হতে কতদিন লাগবে, সেসম্পর্কে তাঁর দাবি, সেটা এখনই বলা মুশকিল। কীভাবে করোনা মোকাবিলা আগামী দিনে করা হবে, তার উপরই নির্ভর করছে কতদিনে এই সংক্রমণ নির্বিষ হয়ে উঠবে। উল্লেখ্য, গোটা বিশ্বের মতো ভারতেও কমছে করোনা অ্যাকটিভের সংখ্যা। তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কার মুখেই কমেছে আর-ভ্যালুও। এবার গবেষকদের কথায় স্বস্তি আরও কিছুটা বাড়ল।

[আরও পড়ুন: মাঝ আকাশ থেকে রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ রাশিয়ার সামরিক বিমান]

তবে করোনা ভাইরাসের মোকাবিলা করার পাশাপাশি অন্যান্য সংক্রামক ভাইরাস সম্পর্কেও সচেতনতার প্রয়োজনীয়তা নিয়ে সকলকে জানিয়েছেন ওই গবেষক। সেই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, ”অতিমারীর আগে যে সমস্ত অসুখ ঘিরে আশঙ্কা রয়েছে এবং আগামী দিনে যাদের থেকে ভয় আছে সেই ভাইরাসের মোকাবিলায় দ্রুত টিকা তৈরি করা প্রয়োজন। সেজন্য তহবিল তৈরি করতে হবে।” 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement