২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৫ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‘ওরা ঠগ, মহাত্মা গান্ধীকেও ছাড়েনি’, ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদীদের তোপ ট্রাম্পের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: September 19, 2020 4:02 pm|    Updated: September 19, 2020 4:02 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জর্জ ফ্লয়েডের হত্যার প্রতিবাদ নিয়ে ফের সরব মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বর্ণবৈষম্যের প্রতিবাদে আমেরিকায় চলা তুমুল প্রতিবাদের প্রেক্ষিতে বিক্ষোভকারীদের নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টের বক্তব্য, “ওরা ঠগ, ওয়াশিংটন ডিসিতে মহাত্মা গান্ধীকেও ছাড়েনি।”

[আরও পড়ুন: নিউ ইয়র্কে বন্দুকবাজের হামলায় মৃত কমপক্ষে দুই, জখম ১৬]

মার্কিন সময় মতে শুক্রবার মিনিসোটায় নির্বাচনী প্রচারে ট্রাম্প বলেন, “আপনারা জানেন, ওরা আব্রাহাম লিংকনের মূর্তি ভাঙতে শুরু করে। তখন ওদের আমি থামতে বলি। কিন্তু ওর তাতে কর্ণপাত করেনি। এরপর ওরা জর্জ ওয়াশিংটন, থমাস জেফারসনের প্রতিকৃতিতে হামলা চালায়।” ওয়াশিংটন ডিসির হিংসার কথা উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, “ওরা ঠগ, মহাত্মা গান্ধীকেও ছাড়েনি। গান্ধী শুধু শান্তি চেয়েছিলেন। আমাদের এখানে কি শান্তি আছে? আমার মনে হয় প্রতিবাদীর কি করছে তা ওরা জানে না। এই বিষয়ে ওদের কোনও ধারণা নেই। আমার মনে হয় ওরা ঠগ বই কিছু নয়। আমি একটি প্রশাসনিক নির্দেশ দিয়েছি, যারা এভাবে হিংসা চরবে তাদের ১০ বছরের জন্য জেলের সাজা হতে পারে।”

উল্লেখ্য, কয়েক মাস আগে মিনিসোটায় পুলিশের হাঁটুর চাপে মৃত্যু হয় কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েডের। তারপরই প্রতিবাদের আগুনে জ্বলে উঠে আমেরিকার প্রায় সবগুলি প্রদেশ। অনেক ক্ষত্রেই হিংসাত্মক ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছায় যে হোয়াইট হাউসের গোপন বাঙ্কারে লুকোতে হয় মার্কিন প্রেসিডেন্টকে। এহেন সঙ্কটে রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসি’র সুরক্ষায় ন্যাশনাল গার্ডের পাশপাশি ফৌজ মোতায়েন করার নির্দেশ দেন ট্রাম্প। যদিও চাপে পড়ে সেই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করেন তিনি।

এদিকে, জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ডের রেশ না কাটতেই মার্কিন মুলুকে পুলিশের হাত আক্রান্ত হন আরও এক কৃষ্ণাঙ্গ যুবক। তারপরই আরও প্রবল হয় ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ (Black Lives Matter) আন্দোলন। ওই কৃষ্ণাঙ্গ যুবককে গুলি করে খুনের চেষ্টার অভিযোগে কাঠগড়ায় ওঠে পুলিশ। উইসকনসিন প্রদেশের রাস্তায় জ্যাকব ব্লেক নামে নিরস্ত্র এক যুবককে লক্ষ্য করে একাধিকবার গুলি চালান পুলিশ অফিসার। গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়েন ব্লেক। প্রতিবাদ রাতভর উইসকনসিনের রাস্তায় বিক্ষোভ দেখান বাসিন্দারা।

[আরও পড়ুন:২০২১ সালের এপ্রিলের মধ্যেই ভ্যাকসিন পাবেন আমেরিকার সমস্ত নাগরিক, প্রতিশ্রুতি ট্রাম্পের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement