১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৭ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

শিখ সম্প্রদায়ের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা! কর্তারপুর গুরুদ্বারের নিয়ন্ত্রণ কেড়ে নিল ইমরানের প্রশাসন

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: November 5, 2020 12:18 pm|    Updated: November 5, 2020 12:32 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উদ্বোধন হওয়ার এক বছরের মধ্যেই কর্তারপুর গুরুদ্বারের নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা পাকিস্তানের শিখ গুরুদ্বার প্রবন্ধক কমিটি (PSGPC)’র থেকে কেড়ে নিল পাকিস্তান সরকার। বিষয়টি নিয়ে প্রবল অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে পাকিস্তানে বসবাসকারী শিখ সম্প্রদায়ের মানুষদের মধ্যে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, আগামী ৮ নভেম্বর কর্তারপুর গুরুদ্বার (Kartarpur Gurudwara) উদ্বোধনের এক বছরপূর্তি হচ্ছে। ঠিক তার আগেই ইমরান খানের সরকার গুরু নানকের স্মৃতিবিজাড়িত এই পবিত্র গুরুদ্বারের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ শিখ গুরুদ্বার প্রবন্ধক কমিটির কাছে থেকে কেড়ে নিল। তাদের জায়গায় গুরুদ্বার দরবার সাহিবের নিয়ন্ত্রণ মুসলিমদের একটি সংস্থা ইটিপিবি (ETPB) -এর হাতে তুলে দিল পাকিস্তানের ধর্মীয় বিষয়ক মন্ত্রক। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে পাকিস্তানে বসবাসকারী শিখ সম্প্রদায়ের মানুষের মনে প্রবল ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। যদিও ইমরানের প্রশাসনের অত্যাচারের ভয়ে তাঁরা এবিষয়ে খুব একটা মন্তব্য করছেন না।

[আরও পড়ুন: মার্কিন নির্বাচনে ইতিহাস! মোট ভোটের নিরিখে ওবামার রেকর্ডও ভেঙে ফেললেন বিডেন]

এপ্রসঙ্গে পাকিস্তানের শিখ গুরুদ্বার কমিটির এক সদস্য জানান, ২০১৯ সালের ৯ নভেম্বর কর্তারপুর গুরুদ্বারের উদ্বোধন হওয়ার পর ভারত-সহ বিভিন্ন দেশে বসবাসকারী শিখ সম্প্রদায়ের মানুষরা প্রচণ্ড আনন্দিত হয়েছিলেন। তারপর থেকে গত এক বছরের মধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে থেকে মানুষ এখানে এসেছেন। কয়েকদিন বাদে এই উদ্বোধনের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠান করারও পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু, তার আগেই এই গুরুদ্বারের নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা মুসলিমদের হাতে তুলে দেওয়া হল। এর ফলে সবাই খুব ভারাক্রান্ত হয়ে পড়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, শিখ ধর্মের প্রতিষ্ঠাতা গুরু নানকের ৫৫০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে গত বছরের ৯ নভেম্বর কর্তারপুর করিডরের উদ্বোধন করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তারপর থেকে গত এক বছরের মধ্যে প্রচুর মানুষ ওই করিডর পেরিয়ে পাকিস্তানে গিয়েছেন। গুরু নানকের স্মৃতিবিজাড়িত গুরুদ্বার দর্শন করেছেন। কিন্তু, এখন মুসলিম সংস্থার হাতে গুরুদ্বারের ভার তুলে দেওয়ায় তাঁদের অনেকেই চিন্তিত।

[আরও পড়ুন: সেনেট দখলের লড়াইয়ে জোর ধাক্কা ডেমোক্র্যাটদের, অটুট রিপাবলিকান গড়]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement