BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

থোড়াই কেয়ার, ছুটি কাটাতে ওয়াশিংটন থেকে নিউ জার্সি উড়ে গেলেন ট্রাম্প কন্যা

Published by: Paramita Paul |    Posted: April 17, 2020 9:13 pm|    Updated: April 17, 2020 10:22 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউনের মাঝেই নতুন করে বিতর্কে জড়ালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট কন্যা ইভাঙ্কা ট্রাম্প। সংকটকালীন পরিস্থিতিতে স্বামীকে নিয়ে ওয়াশিংটন ছেড়ে উড়ে গেলেন নিউ জার্সি। সেখানে পারিবারিক অনুষ্ঠানে যোগ দেন তিনি ও তাঁর স্বামী জারেদ কুশনার। প্রসঙ্গত, করোনা রুখতে ওয়াশিংটনে আপাতত বাড়ি থেকে বের হওয়া নিষিদ্ধ। এর মধ্যে ট্রাম্প কন্যা তথা হোয়াইট হাউসের অর্থনৈতিক উপদেষ্টা কীভাবে অন্য প্রদেশে গেলেন, তানিয়ে নিয়ে জলঘোলা শুরু হয়েছে। ঘটনা প্রসঙ্গে হোয়াইট হাউসের তরফে বলা হয়, “বাণিজ্যিক কারণে নয়, পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে গিয়েছেন তিনি।”

 ২৪ ঘণ্টায় প্রায় সাড়ে চার হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে মার্কিন মুলুকে। লাশের স্তূপে দাঁড়িয়ে রয়েছেন মার্কিনিরা। জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, আমেরিকায় মৃতের সংখ্যা ৩২ হাজার ছাড়িয়েছে। ইতিমধ্যেই মৃত্যুমিছিলের জেরে নিউ ইয়র্কে ১৫ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে লকডাউনের সময়সীমা। কারণ, শুধুমাত্র এই শহরেই ১২ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। পরিস্থিতি কিছুতেই বাগে আসছে না প্রশাসনের। এই অবস্থায় হোয়াইট হাউজ নয়া গাইডলাইন প্রকাশ করেছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে বাণিজ্য ও অন্যান্য পরিষেবা ধাপে ধাপে শুরু করতে চাইছে ওয়াশিংটন। তবে এক প্রদেশ থেকে অন্য প্রদেশে যাতায়াতের উপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে সে দেশে। এবার সেই বিধিনিষেধ উড়িয়ে পরিবারের সঙ্গে ছুটি কাটাতে গেলেন ইভাঙ্কা ট্রাম্প। 

[আরও পড়ুন : করোনা আতঙ্ক অতীত, আগামী সপ্তাহ থেকে ছন্দে ফিরছে ইউরোপের এই দেশগুলি]

এমন পরিস্থিতিতে ট্রাম্প কন্যার বাবার গলফ ক্লাবে সময় কাটানো, ভালভাবে নিচ্ছেন না মার্কিনিরা। তাঁদের কথায়, দেশে এমন পরিস্থিতি। তার মধ্যে প্রেসিডেন্ট কন্যা এহেন সময় কাটানো কি মেনে নেওয়া যায়? উপরন্তু প্রশাসন যখন অ্যাডভাইসরি জারি করেছে। সেই অ্যাডভাইসরি কীভাবে উপেক্ষা করলেন প্রেসিডেন্ট কন্যা? একইসঙ্গে তাঁদের কটাক্ষ, তাহলে কি সমস্ত আইন দেশবাসী একা মানবে? প্রসঙ্গত, ইভাঙ্কার স্বামী ওয়াশিংটনে ফিরে এলেও নিউ জার্সিতেই রয়েছেন তিনি। সেখান থেকেই দেশে পরিস্থিতি নিয়ে বাবা ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে আলোচনা করছেন। 

[আরও পড়ুন : করোনা যুদ্ধে শামিল সুইডেনের রাজকন্যা, আক্রান্তদের সেবায় নিযুক্ত হলেন সোফিয়া]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement