৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অস্ট্রেলিয়া থেকে ভারতে ফিরছে তামিলনাড়ুর মন্দির থেকে চুরি যাওয়া ৫০০ বছরের পুরনো নটরাজ মূর্তি। ৪৮ বছর আগে তামিলনাড়ুর তিরুনেলভেলির কাল্লিডাইকুরিচি মন্দির থেকে চুরি গিয়ে গিয়েছিল একটি নটরাজ মূর্তি। তারপর ১২ বছর বাদে ফের প্রকাশ্যে আসে ১৬ শতান্দীতে তৈরি ব্রোঞ্জের ওই মূর্তিটি। এরপর ২০০১ সালে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেড শহরে অবস্থিত আর্ট গ্যালারি অব সাউথ অস্ট্রেলিয়ায়(এজিএসএ) ঠাঁই পায়। ইউরোপের এক সংগ্রাহকের কাছ থেকে ব্রিটিশ দালালদের মাধ্যমে প্রায় ২৭ কোটি ৫ লাখ ৭২ হাজার ভারতীয় টাকায় এজিএসএ কর্তৃপক্ষ মূর্তিটি কিনেছিল।

[আরও পড়ুন: ‘পৃথিবীর ফুসফুস’ আমাজনকে বাঁচাতে উদ্যোগী বলিভিয়া, সুপার ট্যাঙ্কার দিয়ে বিমান থেকে জল]

ওই গ্যালারিতে ১০০ কেজি ওজনের ও ৭৬ সেমি উচ্চতার মূর্তি দেখে সেটি তামিলনাড়ুর মন্দির থেকে চুরি যাওয়া বলে শনাক্ত করেন কয়েকজন ভারতীয়। তদন্ত করার পর ২০১৬ সালে মূর্তি চোরাই পথে তাদের হাতে এসেছিল বলে স্বীকার করে ওই আর্ট গ্যালারি কর্তৃপক্ষ। ১৯৫৬ সালে তোলা একটি ছবি দেখে ওই মূর্তিটি শনাক্ত করে তারা। এরপর থেকেই মূর্তিটি ফিরিয়ে দেওয়ার বিষয়ে ভারতীয় আধিকারিকদের সঙ্গে কথা চলছিল। সম্প্রতি এই বিষয়ে আলোচনা শেষ হওয়ার পর মূর্তিটি ভারতে ফিরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ১৯৭০ সালে চুরি হয়েছিল এই মূর্তিটি। কাল্লিডাইকুরিচি মন্দিরের তালা ভেঙে মোট চারটি মূর্তি চুরি করে চোর। তদন্তে নেমে মূর্তি উদ্ধার তো দূরের কথা চুরির সঙ্গে জড়িত দুষ্কৃতীদেরই শনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ। পরে পাচারকারীদের হাত ধরে সেই মূর্তি পাচার হয়ে যায় অস্ট্রেলিয়ায়। পরে মূর্তিটি ভারতের বলে শনাক্ত হওয়ার পর সেটি ফেরাতে সচেষ্ট হয় ইন্ডিয়া প্রাইড প্রজেক্ট(আইপিপি) নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। আনুষ্ঠানিকভাবে দাবিও পেশ করা হয় গ্যালারি কর্তৃপক্ষের কাছে। জমা দেওয়া হয় প্রয়োজনীয় কাগজপত্র। সেই সব খতিয়ে দেখেই মূর্তি ফেরানোর সিদ্ধান্ত নেয় এজিএসএ।

[আরও পড়ুন: জেহাদিদের অর্থ জুগিয়ে বিপাকে ইসলামাবাদ, এবার এপিজি-র কালো তালিকায় পাকিস্তান]

ভারতে মূর্তি ফেরানোর প্রসঙ্গে সেই সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা বিজয় কুমার বলেন, ‘পাঁচ বছর আগে মূর্তিটি ফেরানোর দাবি তুলেছিলাম আমরা। অবশেষে তা ভারতে ফেরত আসছে জেনে খুশি হয়েছি। ভারতের উচিত লন্ডনের সেই সংস্থাকে ধরা যারা এই মূর্তিটি যারা বিক্রি করেছিল গ্যালারি কর্তৃপক্ষকে। কারণ, আমাদের মনে হয় ওই মন্দির থেকে চুরি যাওয়া আরও তিনটি ব্রোঞ্জের মূর্তি ওই দালাল চক্রের কাছেই আছে।’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং