৪ শ্রাবণ  ১৪২৬  শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সামরিক, কূটনৈতিক ও আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে ভারতের অবস্থা শ্যাম রাখি না কুল রাখি। রাশিয়ার সঙ্গে ভারতর সামরিক চুক্তি নিয়ে বেজায় চটেছে আমেরিকা। অন্যদিকে, আমেরিকার সঙ্গে বহু কোটি ডলারের সামরিক চুক্তি করলে দূরত্ব বাড়িয়ে ফেলবে রাশিয়াও। এই অবস্থায় মোদি সরকারের কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ রাশিয়া ও আমেরিকার সঙ্গে বন্ধুত্ব ও সদ্ভাব বজায় রাখা এবং কাউকেই না চটানো। এদিকে, রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন বৃহস্পতিবার ফের বলেছেন, আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্ক খুব খারাপ হচ্ছে। ঠান্ডা যুদ্ধের যুগের পর এবং সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্ক এত খারাপ আগে কখনও হয়নি।

[আরও পড়ুন: সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে পাকিস্তানকে তুলোধোনা করলেন মোদি, নীরব শ্রোতা ইমরান]

এই অবস্থায় অস্ত্র কেনাকাটা নিয়ে রক্তচাপ বাড়ছে মোদি সরকারের। ট্রাম্প এবং পুতিনের মন রাখতে হিমশিম খাচ্ছে ভারতীয় বিদেশমন্ত্রক এবং ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রক। আমেরিকার ঘনিষ্ঠতম বন্ধু এবং ন্যাটো গোষ্ঠীর সদস্য দেশ তুরস্ক আমেরিকার শত্রু রাশিয়া থেকে সর্বাধুনিক এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধী ব্যবস্থা কিনেছে বলে আমেরিকা পত্রপাঠ জানিয়েছে, তুরস্ককে এফ-২২ ও এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান বিক্রি করা হবে না। যা যুদ্ধবিমান দেওয়া হয়েছে তা ফিরিয়ে নেওয়া হবে। কারণ তুরস্ক বিশ্বাসভঙ্গ করেছে। তুরস্ক জানিয়েছে, তারা নিরুপায়। আমেরিকা যুদ্ধবিমানগুলি ফিরিয়ে নিলে নিক। কিন্তু রুশ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা তারা নিরাপত্তার জন্যই কিনবে। এক্ষেত্রে আপস নয়। ভারতকে আমেরিকার হুঁশিয়ারি, রুশ ক্ষেপণাস্ত্র ও রাশিয়ার সঙ্গে সামরিক চুক্তি একেবারে বর্জন করুন। না হলে তুরস্কের মতোই হাল হবে আপনাদের। ভারতের সঙ্গে সব সামরিক সম্পর্ক ছিন্ন করব আমরা।

মোদির সরকারও সাফ জানিয়েছে, দেশের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে আপস নয়। গত অক্টোবরেই রাশিয়ার সঙ্গে দফায় দফায় চুক্তি হয়েছে, ভারত ৫০০ কোটি ডলারের বিনিময়ে শীঘ্রই এস-৪০০ ট্রায়াম্ফ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধী ব্যবস্থা কিনছে। এই ভদ্রলোকের চুক্তি থেকে সরে আসার প্রশ্নই নেই। এছাড়া আমেরিকার কাছ থেকে যা যা অস্ত্রশস্ত্র (কপ্টার, যুদ্ধবিমান, সাবমেরিন, গোলাবারুদ) কেনার সেটাও ভারত কিনবে। কিন্তু রাশিয়ার সঙ্গে ঐতিহাসিক সম্পর্ক ছিন্ন করার বা চুক্তি বাতিল করার প্রশ্নই ওঠে না। এখানেই নয়াদিল্লিকে মরিয়া হয়ে বোঝাচ্ছেন মার্কিন বিদেশ সচিব মাইক পম্পেও। ওয়াশিংটনের দাবি, এস-৪০০-এর মতোই উন্নত ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধী ব্যবস্থা ভারতকে দেবে আমেরিকা। দেওয়া হবে চাহিদামতো সবরকমের সামরিক সরঞ্জাম। কিন্তু কিনতে পারবে না রাশিয়া থেকে এস-৪০০। ভারতের দাবি, চিন ২০১৪ সালে এই এস-৪০০ কিনে নিজেদের আকাশ প্রতিরক্ষা ঢেলে সাজিয়েছে। ভারতও তাই নিরাপত্তার প্রশ্নে পিছিয়ে থাকতে পারে না।

[আরও পড়ুন: জলের খোঁজে মা, অ্যারিজোনায় অনুপ্রবেশের সময়ে মৃত্যু তৃষ্ণার্ত ভারতীয় শিশুর]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং