BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন মায়ের দেখভাল করতে অপারগ, জ্যান্ত কবর দিল ছেলে

Published by: Paramita Paul |    Posted: May 8, 2020 12:24 pm|    Updated: May 8, 2020 12:24 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মা বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন। ছেলে তাঁর দেখভাল করতে নারাজ। ফলতঃ মাকে জ্যান্ত কবর দিল ছেলে। ফাঁকা কবরস্থানে মাকে মাটিচাপা দিয়ে বাড়ি ফিরে এসেছিল সে। তিনদিন ধরে বাড়িতে বহাল তবিয়তে থাকছিলও। কিন্তু শাশুড়ি দীর্ঘদিন ধরে বাড়ি না ফেরায় সন্দেহ হয় বউমার। পুলিশের দ্বারস্থ হন তিনি। এরপরই রহস্যের পরদা ফাঁস হয়। চিনের এহেন মর্মান্তিক ঘটনা সামনে আসতেই শিউরে উঠেছে গোটা বিশ্ব।

উত্তর চিনের পুলিশ সূত্রে খবর, ২ মে হুইল চেয়্যারে চাপিয়ে মাকে নিয়ে বেরিয়েছিলেন ওই ব্যক্তি। ঘণ্টাখানেক পরে তিনি বাড়ি ফিরে গেলেও তাঁর মা আর ফেরেননি। এরপর তিনদিন কেটে যায়। কিন্তু সেই মহিলা বাড়ি ফেরেননি। নির্বিকার ছিলেন ছেলেও। জানা গিয়েছে, শানজাই গ্রামের এক কবরস্থানে মাটি চাপা দিয়ে মাকে রেখে গিয়েছিল ছেলে। তিন দিন ধরে সেখানেই ছিলেন ওই মহিলা। শারীরিক শক্তি কম থাকায় তিনি উঠতে পারেননি। তবে ক্ষীণ স্বরে সাহা্য্য চাইছিলেন। সেই শব্দ শুনেই উদ্ধারকারীরা ওই বৃদ্ধাকে উদ্ধার করেন। ছেলে ইয়ানের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন : কীভাবে ছড়াল করোনা? চিনে গিয়ে উৎস খুঁজতে চায় WHO]

স্থানীয় সূত্রে খবর, ৭৯ বছরের বৃদ্ধা ওয়াং বিশেষচাহিদা সম্পন্ন। তাঁর ছেলে ইয়াংয়ের আর্থিক অবস্থা সচ্ছল নয়। তাই মায়ের দায়ভার আর বহন করতে পারছিল না সে। তাই শেষমেশ তাকে জ্যান্ত কবর দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সে। পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্ত করছে। প্রসঙ্গত, স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, পরিবারের বয়স্ক সদস্যদের দেখভাল করা আবিশ্যিক। কিন্তু সরকার তার জন্য কোনওরকম সাহায্য করে না। ফলে নিম্নবিত্ত মানুষের কর্তব্য পালন কঠিন হয়ে দাঁড়ায়।

[আরও পড়ুন : ভারতীয় ও পাকিস্তানি বংশোদ্ভূতদের করোনায় মৃত্যুর সম্ভাবনা বেশি! দাবি ব্রিটিশ গবেষকদের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement