১৭  আষাঢ়  ১৪২৯  রবিবার ৩ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

OMG! প্রথম সন্তান জন্মের মাত্র ২৬ দিন পর ফের প্রসব তরুণীর

Published by: Sayani Sen |    Posted: March 28, 2019 5:38 pm|    Updated: March 28, 2019 5:38 pm

A month after first baby, Bangladeshi woman gives birth to twins

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যমজ সন্তানের জন্ম নতুন কোনও ঘটনা নয়৷ সেক্ষেত্রে সদ্যোজাতদের মধ্যে কয়েক মিনিটের ব্যবধান থাকে৷ কিন্তু প্রথম সন্তান জন্মের পর মাত্র ২৬ দিনের ব্যবধানে আবারও প্রসব! তাও আবার যমজ সন্তানের জন্ম৷ এমন শুনেছেন কখনও? বিরল হলেও, এমনই অবাক করা ঘটনার সাক্ষী ওপার বাংলা৷ পদ্মাপাড়ের বছর কুড়ির ওই প্রসূতির কাহিনি এখন রীতিমতো চর্চার বিষয়৷

আরও পড়ুন: পুতুলের পর এবার তৈমুরের আদলে বিস্কুট!]

যশোরের বাসিন্দা সুমনের সঙ্গে বছর কয়েক আগে বিয়ে হয় আরিফার৷ আট-ন’মাস আগে ওই দম্পতির কাছে আসে সুখবর৷ তাঁরা জানতে পারেন, শ্রমিক পরিবারে আসতে চলেছে খুদে সদস্য৷ রীতিমতো প্রস্তুতি শুরু হয়ে যায়৷ সংসারে টানাটানি রয়েছে ঠিকই৷ তবে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী’র যত্নে কোনও খামতি রাখেননি সুমন৷ দিব্যি আদর যত্নে ছিলেন আরিফা৷ নিয়ম মেনে স্থানীয় সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাও করাতেন তিনি৷ মাসখানেক আগে আচমকাই প্রসব যন্ত্রণা শুরু হয় আরিফার৷ তাঁকে ভরতি করা হয় হাসপাতালে৷ নির্ধারিত সময়ের বেশ খানিকটা আগেই একটি পুত্রসন্তানের জন্ম দেন তিনি৷ প্রথম কয়েকদিন অসুস্থ থাকলেও, আপাতত সুস্থ ছিল সদ্যোজাত-মা দু’জনেই৷  নতুন মা আরিফা দিব্যি তাঁর সদ্যোজাতকে নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন৷ বাড়ির লোকজনও বেজায় খুশি৷

[আরও পড়ুন: মাইক্রোওয়েভ চ্যালেঞ্জে মেতেছে নেটদুনিয়া, ভাইরাল ভিডিও]

কিন্তু এরই মাঝে নতুন বিপত্তি৷ প্রথম সন্তান জন্মের ছাব্বিশ দিনের মাথায় আবারও অসুস্থ হয়ে পড়েন আরিফা৷ পেটের যন্ত্রণা শুরু হয় তাঁর৷ কী হয়েছে গৃহবধূর, তা কিছুতেই বুঝতে পারছিলেন না তাঁর পরিজনেরা৷ তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় আরিফাকে৷ চিকিৎসকরা পরীক্ষানিরীক্ষার পর বুঝতে পারেন, প্রসব যন্ত্রণা হচ্ছে তাঁর৷ অস্ত্রোপচার করেন চিকিৎসকরা৷ এবার এক পুত্রসন্তান এবং এক কন্যাসন্তানের জন্ম দেন আরিফা৷

[ আরও পড়ুন: উচ্চতার দৌড়ে পয়লা, বিশ্ব রেকর্ডের পথে অমৃতসরের এই পুলিশকর্মী]

কিন্তু প্রথম সন্তান জন্মের মাত্র ২৬দিন পর আবারও কীভাবে যমজ সন্তান হল আরিফার, তা নিয়ে কৌতূহলের অন্ত নেই৷ তাজ্জব চিকিৎসকেরাও৷ গত ৩০ বছরের কেরিয়ারে এমন ঘটনা কখনও দেখেননি বলেই জানিয়েছেন চিকিৎসক দিলীপ রায়৷ স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ শীলা পোদ্দার বলেন, ‘‘গৃহবধূর প্রথম সন্তান নির্ধারিত সময়ের বেশ খানিকটা আগেই জন্মেছিল৷ নর্মাল ডেলিভারির ফলে সেই সময় চিকিৎসক খেয়াল করেননি, গর্ভে আরও দু’টি সন্তান রয়ে গিয়েছে তাঁর৷ তবে আপাতত তিনটি সন্তানই সুস্থ রয়েছে ওই গৃহবধূর৷’’

[ আরও পড়ুন: সম্পূর্ণ নগ্ন হয়ে বিমানে উঠছেন যাত্রী! কারণ জানলে অবাক হবেন]

মাসে মাত্র ৬০০০ টাকা আয় সুমনের৷ সংসারে অভাব নিত্যসঙ্গী৷ ফুটফুটে তিনটি সন্তানের খরচ কীভাবে সামলাবেন, সে বিষয়ে চিন্তিত দম্পতি৷ তবে স্ত্রী ও সন্তানদের সুখে রাখার চেষ্টা করবেন বলেই হাসি মুখে জানিয়েছেন তিন সন্তানের গর্বিত বাবা সুমন৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে