২৯ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘সারেগামাপা’ শেষ হতেই একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করে সমালোচনায় জড়িয়েছেন তিনি৷ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে অপমান করায় তাঁকে বয়কটের দাবিতে সরব হয়েছে ভারতীয়দের একাংশ৷ আর এবার বাংলাদেশেও সমালোচনার মুখে পড়লেন উঠতি রকস্টার নোবেল। তাঁর সমালোচনায় এবার সরব হলেন হাসিনা সরকারের দুই মন্ত্রী৷

[ আরও পড়ুন: বাংলাদেশে ক্রমশই মহামারির আকার নিচ্ছে ডেঙ্গু, মৃত ১০০]

জানা গিয়েছে, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে নিয়ে নোবেলের বিতর্কিত মন্তব্যের নিন্দা করেছেন বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক দপ্তরের মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক এবং পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান৷ সম্প্রতি ‘চলচ্চিত্রে বঙ্গবন্ধুর অবদান’ শিরোনামের একটি অনুষ্ঠান চলাকালীন নোবেলের মন্তব্যের নিন্দা করেন তাঁরা৷ সাফ বলেন, নোবেলের মন্তব্য ‘স্বাধীনতা বিরোধী’। এখানেই শেষ নয়, নিজের দেশ সম্পর্কেও উঠতি এই গায়কের কোনও ধারণা নেই বলেও দাবি করেন তাঁরা।

[ আরও পড়ুন: চলতি বছরের প্রথম ছ’মাসে ২০৫টি শিশুহত্যা, পরিসংখ্যানে উদ্বেগ বাংলাদেশে ]

প্রসঙ্গত, ‘সারেগামাপা’ শেষের পর থেকেই নানান বিতর্কে জড়িয়েছেন নোবেল৷ বারবার সংবাদ শিরোনামে উঠে এসেছে তাঁর নাম৷ একটি বেসরকারি চ্যালেনের সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, রবীন্দ্রনাথের সোনার বাংলা নয়, প্রিন্স মাহমুদের ‘বাংলাদেশ’ গানটিকে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত হিসাবে বেশি পছন্দ তাঁর৷ কারণ, সেই গানের সঙ্গে নাকি বাংলাদেশের বেশি আবেগ জড়িয়ে রয়েছে৷ এমনকী নোবেল সাফ জানান, লেডি গাগা বা শ্রেয়া ঘোষাল ছাড়া কারও সঙ্গে গানের ইচ্ছা নেই তাঁর৷ ‘সারেগামাপা’র বিচারক মোনালি ঠাকুরের সঙ্গেও নয়৷ রবীন্দ্রনাথকে অপমান করার জন্য তার কড়া সমালোচনা করেন সঙ্গীত শিল্পী ইমন চক্রবর্তী৷ এমনকী, সোশ্যাল মিডিয়াতেও নেটিজেনদের রোষের মুখে পড়েন তিনি৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং