BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

লড়াই কঠিন বুঝেই অচেনা কেন্দ্রে জনসংযোগে জোর বিজেপি প্রার্থী অনুপমের

Published by: Sayani Sen |    Posted: March 26, 2019 5:08 pm|    Updated: April 20, 2019 6:39 pm

An Images

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর: সদ্যই দল বদলেছেন তিনি৷ ঘাসফুল ছেড়ে নাম লিখিয়েছেন পদ্ম শিবিরে৷ লোকসভা নির্বাচনে তাঁকে প্রার্থী করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব৷ হাসিমুখে কাঁধে তুলে নিয়েছেন গুরুদায়িত্ব৷ যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপির হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বোলপুরের বিদায়ী সাংসদ অনুপম হাজরা৷ একদিকে তৃণমূলের তারকা প্রার্থী মিমি চক্রবর্তী, অন্যদিকে বামেদের বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য৷ দুই প্রতিদ্বন্দ্বীর সঙ্গেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই৷ কার উপর ভরসা রাখবেন সাধারণ মানুষ, সে উত্তর মিলবে আগামী ২৩ মে৷ তবে তার আগে বিনা যুদ্ধে সূচ্যগ্র মেদিনী ছেড়ে দিতে রাজি নন কোনও দলের প্রার্থীই৷ ভোট বৈতরণী পেরোতে জনসংযোগই হাতিয়ার সকলের৷ একই ফর্মুলাকে কাজে লাগাচ্ছেন  বিজেপির অনুপম হাজরাও৷ তাই মঙ্গলবার নিজের লোকসভা কেন্দ্র ঘুরে ভোটারদের সঙ্গে কথা বললেন তিনি৷

[ আরও পড়ুন: মহানায়িকার জন্মদিন নিয়ে ‘রাজনীতি’, মুনমুনকে কটাক্ষ বাবুলের]

ঈশ্বরের আশীর্বাদ নিয়ে ভোটপ্রচার শুরু করেছেন গেরুয়া শিবিরের সৈনিক৷ মঙ্গলবার সকালে রাজপুরের বিপত্তারিণী মন্দিরে পুজো দেন তিনি৷ এরপর ওই এলাকায় ঘুরে ঘুরে প্রায় সকলের সঙ্গেই কথা বলেন অনুপম৷ বয়স্ক ভোটারদের সঙ্গে কথা বলেন৷ সমস্যার কথাও শোনেন বিজেপি প্রার্থী৷

Anupam-hajra

ভোটপ্রচারে বেরিয়ে রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন তিনি৷ রাজ্যে এতটুকু উন্নয়ন হয়নি বলেও খোঁচা দিতে ছাড়েননি এই বিজেপি প্রার্থী৷ তিনি বলেন, ‘‘রাজ্যে জঙ্গলের রাজত্ব চলছে৷ বাম আমলে সাধারণ মানুষের প্রচুর ক্ষতি হয়েছে৷ তৃণমূলও একইভাবে মানুষের ক্ষতি করেছে৷’’ গেরুয়া শিবিরে নাম লেখানোর বহু আগে থেকেই দলের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়িয়েছিলেন অনুপম৷ সেই সময় শাসকদলের বিরুদ্ধে বারবারই সোশ্যাল মিডিয়ায় সুর চড়িয়েছেন তিনি৷ ভোটপ্রচারে বেরিয়েও সেই প্রসঙ্গই টেনে এনেছেন অনুপম৷ তাঁর অভিযোগ, পশ্চিমবঙ্গে এখন কারও বাক স্বাধীনতা নেই৷

[ আরও পড়ুন: তৃণমূলের প্রতীক আঁকা টি-শার্ট গায়ে বিজেপির দেওয়াল লিখন, কে এই যুবক?]

তৃণমূলকে যেমন কড়া ভাষায় দুষছেন অনুপম, তেমনই গেরুয়া শিবিরের প্রশংসায় পঞ্চমুখ বিজেপি প্রার্থী৷ এতদিন উন্নয়নের নামে বাংলার মানুষের সঙ্গে  বিশ্বাসঘাতকতা করা হয়েছে, অভিযোগ তুলে অনুপম হাজরার আশ্বাস, বিজেপি আবারও কেন্দ্রে সরকার গঠন করলে, রাজ্যের মানুষের প্রকৃত উন্নয়ন হবেই৷ বোলপুরের জনপ্রিয়, তরুণ অধ্যাপক-সাংসদ কি যাদবপুরের জনসমর্থনও একইভাবে নিজের দিকে টানতে পারবেন? মঙ্গলবারের প্রচার কিন্তু বেশ আশা জাগাচ্ছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement