৩ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

হেলিকপ্টার অবতরণে জট, শিলিগুড়িতে রাহুল গান্ধীর সভা ঘিরে অনিশ্চয়তা

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 12, 2019 5:34 pm|    Updated: April 17, 2019 1:05 pm

Congress president Rahul Gandhi's election rally in siliguri in jeopardy

রাহুল চক্রবর্তী: রাজ্য সফরে ফের হেলিকপ্টার বিতর্ক। এবার রাহুল গান্ধীর হেলিকপ্টার নামার অনুমতি মিলল না শিলিগুড়িতে। আগামী ১৪ এপ্রিল শিলিগুড়ির দাগাপুরে জনসভা করার কথা কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতির। কিন্তু প্রশাসনের অনুমতি না মেলায় সেই সভা ঘিরে চূড়ান্ত অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘ভোট নয়, পাশে থাকতে চাই’, পাহাড়ে প্রচার সভা থেকে বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর]

ভোটের মরশুমে ইতিমধ্যেই রাজ্যে দুটি জনসভা করে গিয়েছেন রাহুল গান্ধী। দুটি সভা থেকেই রাজ্যের শাসকদলকে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করেছেন কংগ্রেস সভাপতি। আগামী ১৪ এপ্রিল শিলিগুড়ির দাগাপুর মাঠে তাঁর তৃতীয় জনসভাটি হওয়ার কথা। সেই মতো পুলিশ কমিশনারেটের মাঠে হেলিপ্যাড তৈরীর অনুমতি চেয়ে গত ৭ এপ্রিল জেলা প্রশাসনকে চিঠি দেয় কংগ্রেস। শুক্রবার প্রশাসনের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ওই মাঠে হেলিকপ্টার নামানো যাবে না। ওই মাঠে হেলিপ্যাড তৈরিতে অনেক সমস্যা রয়েছে বলে জানিয়েছে প্রশাসন। কংগ্রেসকে বিকল্প মাঠ খোঁজার প্রস্তাবও দিয়েছে প্রশাসন।

মুশকিল হল, হাতে সময় একেবারেই নেই। মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নতুন মাঠ খুঁজে সভা করা আদৌ সম্ভব কিনা, তা নিয়ে সন্দিহান কংগ্রেস নেতারাই। রাহুল গান্ধীর নিরাপত্তা ব্যবস্থা পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করে এসপিজি। নতুন মাঠে সভা করতে হলে এসপিজির অনুমতি পাওয়া নিয়েও সংশয় রয়েছে। দার্জিলিং লোকসভা কেন্দ্রের ভোট ১৮ এপ্রিল। প্রচার শেষ করতে হবে ১৬ এপ্রিল বিকেলের মধ্যে। এর মাঝে নতুন করে সভার সময় পেলেও রাহুল গান্ধীর সূচির সঙ্গে তা মিলবে কিনা, তা নিয়েও সংশয় রয়েছে।তবে, কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে সবটা জানানো হয়েছে। তারাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন।

[আরও পড়ুন: পুনর্নির্বাচনের দাবিতে অনড় বিজেপি, ভোটপর্ব মিটলেও উত্তপ্ত কোচবিহার]

এদিকে, জেলা প্রশাসনের এই সিদ্ধান্তে রীতিমতো ক্ষুব্ধ দার্জিলিংয়ের কংগ্রেস প্রার্থী তথা জেলা সভাপতি শংকর মালাকার। ২৪ ঘন্টার মধ্যে বিকল্প মাঠ না পেলে সভা বাতিল হবে বলে জানিয়েছেন প্রার্থী। তাঁর দাবি, রাহুল গান্ধী রাজ্যে এসে লাগাতার তৃণমূলকে কাঠগড়ায় তুলছেন। তাই রাজ্যের শাসকদল ভয় পেয়ে তাঁকে আটকাতে চাইছে৷ 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে