BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

ঝাড়গ্রামের জমিতে তাণ্ডব চালাচ্ছে বিশেষ প্রজাতির পঙ্গপাল, বনদপ্তরের তথ্যে বাড়ছে আতঙ্ক

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: June 3, 2020 9:25 am|    Updated: June 3, 2020 2:43 pm

An Images

সুনীপা চক্রবর্তী, ঝাড়গ্রাম: “ঝাড়গ্রামের বিভিন্ন সবজি বাগানে নজরে পড়া পতঙ্গ এক প্রজাতির পঙ্গপাল“, বনদপ্তরের তরফে এই বিষয়টি জানানোর সঙ্গে সঙ্গে আতঙ্কে কাঁটা ঝাড়গ্রাম। ঘুম উড়েছে কৃষকদের। ফসল বাঁচাতে একের পর এক জমি পরিদর্শন করেছেন খড়গপুর বনবিভাগের আধিকারিকরা। 

জানা গিয়েছে, কয়েকদিন আগে ঝাড়গ্রামের জোড়াশালের মহিলারা গ্রামের পাশে সবজি বাগানে এক বিশেষ পতঙ্গের উপস্থিতি টের পান। যে পতঙ্গগুলি লাউ, আদা-সহ বিভিন্ন সবজি খেয়ে সাবাড় করছিল। এতেই পঙ্গপালের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। ব্লক প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিডিও এবং বনদপ্তরের স্থানীয় বিটের পক্ষ থেকে গ্রামটি পরিদর্শন করা হয়। গ্রামের বাসিন্দা ছোটোন দাস জানান,  “এক প্রকার পতঙ্গ আমাদের গ্রামে লাউ, আদা-সহ বিভিন্ন গাছ খেয়ে শেষ করে দিয়েছে। আমরা রীতিমতো আতঙ্কিত।” এই ঘটনার পরও একাধিকবার সবজি বাগানে ওই পতঙ্গের উপস্থিতি টের পাওয়া যায়। এতেই আতঙ্ক দৃঢ় হয়। এরপরই ঝাড়গ্রাম প্রাণী সম্পদ বিকাশের অধিকর্তা চঞ্চল দত্ত জানান যে, “ওই পতঙ্গ পঙ্গপালের একটি প্রজাতি। তাই বিপদ এড়াতে সব ধরণের ব্যবস্থা অবলম্বন করা প্রয়োজন।” এতেই ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা করছেন কৃষকরা।

pongopal-2

[আরও পড়ুন: লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে রেকর্ড সংখ্যক করোনা আক্রান্তের হদিশ]

এ বিষয়ে খড়গপুর বনবিভাগের ডিএফও অরুপ মুখোপাধ্যায় বলেন, “ওই গ্রামে আমাদের স্থানীয় বিট অফিসার এবং ব্লকের বিডিও গিয়েছিলেন। আমাদের অনুমান এটি এক প্রজাতির পঙ্গপাল।” তবে বিডিও মিঠুন মজুমদারের কথায়,  “ওই গ্রামে পরিদর্শনে গিয়েছিলাম। তবে আমরা নিশ্চিত নই। পতঙ্গ গুলি আকারে ছোট।”

[আরও পড়ুন:ত্রাণ দেবে প্রশাসন, দলের কারও মাতব্বরি চলবে না, নেতা-কর্মীদের সমঝে দিল তৃণমূল]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement