১৫ ফাল্গুন  ১৪২৬  শুক্রবার ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

নির্মীয়মাণ স্কুলবাড়িতে মাদ্রাসার বোর্ড, গুজবে গোষ্ঠী সংঘর্ষে ধুন্ধুমার গোবরডাঙা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 21, 2020 2:40 pm|    Updated: January 21, 2020 4:34 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গোষ্ঠী সংঘর্ষে উত্তপ্ত উত্তর ২৪ পরগনার গোবরডাঙা। সোমবার বিকেলের অশান্তির ঘটনার তদন্তে নেমে আজ ২১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। যদিও ধৃতদের সকলেরই দাবি, এই ঘটনার সঙ্গে কোনওভাবে জড়িত নন তাঁরা কেউ। এখনও থমথমে বেড়গুমের নকপুল এলাকা। কোনওরকম অশান্তি আটকাতে এলাকায় মোতায়েন রয়েছে পুলিশ, ব়্যাফ। কড়া নজর রেখেছে প্রশাসন।

স্থানীয় সূত্রে খবর, অশান্তির সূত্রপাত একটি জমিকে কেন্দ্র করে। ওই জমিতে তৈরি হচ্ছিল একটি বিল্ডিং। সেটি স্কুল তৈরি হবে বলেই জানতেন স্থানীয় বাসিন্দারা। কিন্তু সোমবার বিকেলে কয়েকজন সেখানে যান।তাঁদের দাবি, নির্মীয়মাণ বাড়িটির গায়ে মাদ্রাসার সাইনবোর্ড ঝুলতে দেখেন তাঁরা। লক্ষ্মীপুর হিন্দু অধ্যুষিত গ্রাম। সেখানে কেন মাদ্রাসা, আশেপাশের মানুষজনের কাছে তা জানতে চান। কোনও সদুত্তর না পেয়ে উত্তেজিত হয়ে ওঠেন। এরপরই শুরু হয় অশান্তি। নির্মীয়মাণ বাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয় বলে অভিযোগ। রাস্তার উপর টায়ার ফেলে জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। এসবের জেরে সোমবার সন্ধে পর্যন্ত অশান্তি জারি ছিল নকপুল এলাকায়।

[আরও পড়ুন: মিলল অজানা জন্তুর পায়ের ছাপ, আতঙ্কে দিন কাটছে ফুলিয়ার এই গ্রামের]

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে গেলে আক্রান্ত হয় পুলিশও। গোবরডাঙা থানার পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ছোঁড়া হয়। জনতা-পুলিশ খণ্ডযুদ্ধ বাঁধে। পরিস্থিতি এতটাই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে যে পার্শ্ববর্তী গাইঘাটা ও হাবরা থানা থেকেও পুলিশ বাহিনীকে ডেকে পাঠানো হয়। ফাটানো হয় কাঁদানে গ্যাসের শেল। নামানো হয় ব়্যাফ। রাতের দিকে পরিস্থিতি ঠান্ডা হয়। তবে মঙ্গলবার সকালেও থমথমে ছিল এলাকা। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, এলাকার এক মহিলা জমিটি দান করেছিলেন স্কুল তৈরির জন্য। তাতে মাদ্রাসার বোর্ড লাগিয়ে দেওয়ার অর্থ, জমিটির দখল নেওয়া। আর তাতেই আপত্তি তাঁদের। ঘটনায় অভিযুক্ত সন্দেহে ২১ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এলাকায় যাতে শান্তি বজায় থাকে, সেদিকে কড়া নজর রেখেছে প্রশাসন।

[আরও পড়ুন: দলের প্রতি আনুগত্যের ‘পুরস্কার’, ভাটপাড়া পুরসভার চেয়ারম্যান হলেন অরুণ বন্দ্যোপাধ্যায়]

An Images
An Images
An Images An Images