BREAKING NEWS

১২ শ্রাবণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৯ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

করোনা কালে অবৈধ জমায়েত! Suvendu Adhikari’র বিরুদ্ধে মামলা পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পুলিশের

Published by: Sayani Sen |    Posted: July 21, 2021 9:32 am|    Updated: July 21, 2021 9:46 am

Police file a case against BJP MLA Suvendu Adhikari । Sangbad Pratidin

স্টাফ রিপোর্টার: শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari) বিরুদ্ধে তৃণমূলের (TMC) তদন্ত শুরু করার দাবি তোলার কিছু সময়ের মধ্যেই তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করল পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পুলিশ। রাজ্যের বিরোধী দলনেতা একদিন আগেই দাবি করেছিলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abishek Banerjee) ফোনের কল রেকর্ডের সব তথ্য তাঁর কাছে আছে। দেশজুড়ে নেতা-নেত্রীর ফোনে আড়ি পাতার খবর ফাঁস হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই শুভেন্দু নিজেই এই দাবি করেন। শুভেন্দুর এই বক্তব্যের পরেই মঙ্গলবার তাঁর বিরুদ্ধে তদন্তের দাবি তোলে রাজ্যের শাসকদল। তারপরই অবৈধ জমায়েতের অভিযোগে শুভেন্দুর বিরুদ্ধে পুলিশের স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের তাঁর নিজের জেলায়।

এদিন এই ইস্যুতে একাধিক তৃণমূল নেতা তোপ দেগেছেন বিরোধী দলনেতার বিরুদ্ধে। দলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh) টুইট করেছেন। শুভেন্দুকে ‘এলওপি’ বলে বরাবরই কটাক্ষ করেন তিনি। ‘এলওপি’ হল ‘লিডার অফ অপজিশন’, অর্থাৎ বিরোধী দলনেতা। কুণাল কটাক্ষ করে এর অর্থ বদলে শুভেন্দুকে বলেন, ‘লিমিটলেস অপরচুনিস্ট’, অর্থাৎ ‘সীমাহীন সুবিধাবাদী’। এদিনও সেই কটাক্ষ ছুঁড়ে তাঁর নাম না করেই বলেছেন, ‘এলওপি প্রকাশ্যে পুলিশকে বলেছে ওর কাছে আমাদের নেতার দপ্তরের ফোনের কল লিস্ট, রেকর্ডিং সব আছে। এটা ফোনে আড়ি পাতার প্রমাণ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) এবং অভিষেকের কাছে অনুরোধ, “অবিলম্বে তদন্ত শুরু করে ওর জেরার মাধ্যমে গোটা চক্রান্ত প্রকাশ্যে আনা হোক।” 

[আরও পড়ুন: মালিক চেয়েছিলেন ১ কোটি, ইদের আগে একটিমাত্র ছাগলের দাম উঠল ৫১ লক্ষ টাকা]

সোমবার পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুকে (Tamluk) নাম না করে পুলিশ সুপারের উদ্দেশে শুভেন্দু কার্যত শাসানির সুরে বলেন, ‘‘এখানে একটি বাচ্চা ছেলে এসপি হয়ে এসেছেন। আমি তাঁকে বলতে চাই আপনি কেন্দ্রীয় সরকারের অফিসার। এমন কাজ করবেন না যাতে কাশ্মীরের অনন্তনাগ বা বারমুলায় গিয়ে ডিউটি করতে হয়।’’ একই সঙ্গে বলেছিলেন, ‘‘ভাইপোর অফিস থেকে যাঁরা ফোন করেন তাঁদের প্রত্যেকের কল রেকর্ড আমার কাছে রয়েছে। তাই সতর্ক হোন। আপনাদের কাছে যদি রাজ্য সরকার থাকে, তবে আমাদের হাতে রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।’’ এরপরেই সরব হয় তৃণমূল।

শুভেন্দু যেভাবে বিক্ষোভ কর্মসূচির আয়োজন করেছিলেন, তাতে করোনাবিধি (Covid Norm) অমান্য করে অবৈধভাবে জমায়েত হয়। সেই অভিযোগেই তাঁর বিরুদ্ধে মামলা। অবৈধ জমায়েত ছাড়াও অন ডিউটি অফিসারদের ভয় দেখানো, উসকানিমূলক মন্তব্য, সরকারি তথ্যের গোপনীয়তার বিরুদ্ধে কথা বলার মতো ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৪১, ১৮৬, ১৮৭, ১৮৮, ১৮৯, ২৬৯, ২৭০,২৯৫এ, ৫০৬, ১২০বি ধারা ছাড়াও বিপর্যয় মোকাবিলা আইনের ৫১বি ধারা ও অফিশিয়াল সিক্রেসি অ্যাক্টে এফআইআর (FIR) করা হয়েছে। শুভেন্দু-সহ চার বিধায়ক ও আট বিজেপি (BJP) নেতার বিরুদ্ধেও ওই সব অভিযোগেই মামলা হয়েছে। জেলা পুলিশ সুপার অমরনাথ কে জানিয়েছেন, “করোনা আবহে বিক্ষোভ কর্মসূচির নামে অবৈধভাবে জমায়েত-সহ একাধিক অভিযোগে বিজেপি নেতৃত্বের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা করা হয়েছে।”

এই প্রসঙ্গে শুভেন্দুর প্রতিক্রিয়া, “দলদাস পুলিশ কিছুই করতে পারবে না। পুলিশের কাজ মামলা করা। ওরা করেছে। আমরা ছাত্র রাজনীতি থেকে উঠে এসেছি। মামলা করে আমাদের কিছু করা যাবে না।” এদিকে শুভেন্দু অধিকারীর রক্ষীর রহস্যমৃত্যুর তদন্তে তিন পুলিশ অফিসারকে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করল সিআইডি (CID)। সূত্রের খবর, মঙ্গলবার কাঁথি থানার তিন আধিকারিককে ভবানীভবনে ডেকে পাঠানো হয়। তাঁদের মধ্যে দু’জন ওই রক্ষীকে হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছিল বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: বঙ্গোপসাগরে একের পর এক নিম্নচাপের চোখরাঙানি, রাজ্যজুড়ে ধেয়ে আসছে দুর্যোগ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement