BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৯ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে আক্রান্তের তুলনায় বেশি করোনাজয়ীর সংখ্যা, কলকাতায় একদিনে সুস্থ ৯৫০ জন

Published by: Sulaya Singha |    Posted: November 27, 2020 9:21 pm|    Updated: November 27, 2020 9:38 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গোটা দেশের ৭৭ শতাংশ অ্যাকটিভ কেসের জন্য কেন্দ্র দশটি রাজ্যকেই দায়ী করেছে। যার মধ্যে রয়েছএ পশ্চিমবঙ্গও। উৎসবের মরশুমে এ রাজ্যে একলাফে সংক্রমণ অনেকখানি বাড়লেও ধীরে ধীরে দৈনিক করোনা গ্রাফ নিম্নমুখীই দেখাচ্ছে। এদিনও যেমন গতকালের তুলনায় কমল আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। কমেছে অ্যাকটিভ কেসও। এমনকী, কলকাতায় একদিনে সুস্থ হয়ে উঠলেন সাড়ে ন’শোরও বেশি মানুষ।

শুক্রবার রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তরের বুলেটিন অনুযায়ী, বাংলায় একদিনে করোনা (Corona Virus) আক্রান্ত হয়েছে ৩ হাজার ৪৮৯ জন। যার মধ্যে সর্বাধিক সংক্রমিতের হদিশ মিলেছে কলকাতায় (৮৯৩)। যথারীতি দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা (৮৫৮)। দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও নদিয়ার সংক্রমণের ছবিটা অবশ্য বিশেষ স্বস্তিজনক নয়। একদিনে এই দুই জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন যথাক্রমে ২৩৮ ও ২৩০। এদিকে উত্তরবঙ্গের মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে দার্জিলিং। সেখানে একদিনে সংক্রমিত ১০২। সবমিলিয়ে বাংলার মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৪ লক্ষ ৭৩ হাজার ৯৮৭ জন। তবে কমেছে অ্যাকটিভ কেস। বর্তমানে চিকিৎসাধীন করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৪ হাজার ৬১৭ জন।

[আরও পড়ুন: জল্পনায় সিলমোহর, তৃণমূল ছেড়ে পদ্মশিবিরে যোগ দিলেন বিধায়ক মিহির গোস্বামী]

স্বস্তি দিয়ে বাড়ছে বাংলায় কোভিডজয়ীর সংখ্যাও। একদিনে করোনা থেকে সেরে উঠেছেন ৩ হাজার ৪৯৬ জন। যার মধ্যে শুধু তিলোত্তমাতেই সুস্থ ৯৫৬ জন। রাজ্যে করোনা জয়ীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৪ লক্ষ ৪১ হাজার ১০০ জন। সুস্থতার হার ৯৩.০৬। 

তবে সংক্রমণের মতোই এখনও বাগে আনা যায়নি মৃত্যুও। গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলায় করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৪৬ জনের। এখনও পর্যন্ত বাংলায় করোনা প্রাণ কেড়েছে ৮ হাজার ২৭০ জনের। পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৪৫, ১২৭ জনের। এ নিয়ে রাজ্যে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়াল ৫৭,৪৪, ৩৬৪। শীতের আগে করোনায় সুস্থতার হার আরও বাড়ানোই লক্ষ্য রাজ্যের স্বাস্থ্যদপ্তরের।

[আরও পড়ুন: স্কুল খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকলেও থেমে নেই কাজ, আগামী সপ্তাহ থেকেই শুরু হচ্ছে ভরতি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement