৭ মাঘ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২১ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দীর্ঘক্ষণ পর রবিবার সকাল থেকে রাজ্যের বিভিন্ন শাখায় স্বাভাবিকের পথে রেল পরিষেবা। হাওড়া-খড়গপুর শাখা এবং দক্ষিণ-পূর্ব শাখায় আজ সকাল থেকে রেল চলাচল একটু একটু করে স্বাভাবিক হচ্ছে। তবে নিরাপত্তার স্বার্থে বাতিল একগুচ্ছ লোকাল এবং দূরপাল্লার ট্রেন। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (CAA) প্রতিবাদে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে শুক্রবার থেকেই বিক্ষোভে নেমেছেন সাধারণ মানুষ। রাস্তাঘাট, রেলপথ অবরোধ করে বিক্ষোভের জেরে চূড়ান্ত নাকাল হতে হচ্ছে নিত্যযাত্রীদের। রবিবার সকালে অবশ্য অনেকটা স্বাভাবিক সমস্ত পরিষেবা।

লোকসভা, রাজ্যসভার পরীক্ষা পেরিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে (CAB) রাষ্ট্রপতি স্বাক্ষর করে দেওয়ার পরই তা আইনে পরিণত হয়েছে। আর তারপর থেকেই এর বিরোধিতায় প্রতিবাদ একেবারে সপ্তমে উঠেছিল অসম এবং ত্রিপুরায়। পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যাওয়ায় অসমে কারফিউ জারি করতে হয়। সেই রেশ এসে পড়ে বাংলাতেও। সীমান্ত লাগোয়া এলাকা থেকে শুরু করে বিভিন্ন প্রান্তে চলে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (CAA) বিরোধী প্রতিবাদ। কোথাও পথ অবরোধ, কোথাও রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে, কোথাও আবার রেললাইন অবরোধ করে লাগাতার চলতে থাকে প্রতিবাদ।

[আরও পড়ুন: ১০০ দিনের কাজে সেরার শিরোপা বাবুরমহল গ্রাম পঞ্চায়েতের, শুভেচ্ছাবার্তা মুখ্যমন্ত্রীর]

তা চরম আকার নেয় শনিবার। হাওড়ার বিভিন্ন শাখায় রেল অবরোধের জেরে প্রচুর দূরপাল্লার ট্রেন, লোকাল ট্রেন বাতিল করা হয়। দুর্ভোগের শিকার হন যাত্রীরা। গন্তব্যে পৌঁছানোর জন্য ট্রেন ধরতে গিয়ে রাতভর হাওড়া স্টেশনেই অপেক্ষা করেছেন অনেকে। উন্মত্ত জনতার হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে স্টেশনের কন্ট্রোল রুম। সেখানেও চলেছে ভাঙচুর। এদিকে, সড়কপথেও প্রায় একই অবস্থা। কোনা এক্সপ্রেসওয়ে লাগোয়া সাঁতরাগাছি, আন্দুল, সাঁকরাইলে রাস্তায় রাস্তায় আগুন জ্বালান বিক্ষোভকারীরা। প্রচুর বাস জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। সবমিলিয়ে, কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় ওইসব এলাকা। পুলিশকেও পরিস্থিতি সামাল দিতে বেশ বেগ পেতে হয়।

[আরও পড়ুন: নদী থেকে দেদার বালি পাচার, হাতেনাতে ১৫০টি লরি পাকড়াও জেলাশাসকের]

রবিবার সকাল থেকে অবশ্য ছবিটা একটু আলাদা। হাওড়ায় অপেক্ষারত যাত্রীদের স্বস্তি দিয়ে প্রায় ১১ঘণ্টা পর হাওড়া-খড়গপুর শাখায় স্বাভাবিক হয়েছে ট্রেন চলাচল। পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক নিখিল চক্রবর্তী জানিয়েছেন যে ক্ষতিগ্রস্ত প্যানেল রুম এবং রেলট্র্যাক মেরামতির পরই স্বাভাবিক হয়েছে পরিষেবা। দক্ষিণ-পূর্ব শাখাতেও ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হচ্ছে ট্রেন চলাচল। তবে নিরাপত্তার স্বার্থে বেশ কিছু ট্রেন বাতিল রয়েছে আজও। হাওড়া থেকে কামরূপ এক্সপ্রেস, করমন্ডল এক্সপ্রেস, ব্রহ্মপুত্র এক্সপ্রেস, পুণে দুরন্ত, তিস্তা-তোর্সা, গরিব রথ, রাধিকাপুর এক্সপ্রেস, হাওড়া-এর্নাকুলাম এক্সপ্রেস বাতিল করা হয়েছে। বাতিল করা হয়েছে দিঘাগামী বেশ কয়েকটি ট্রেনও। পরে আবার এই ট্রেনগুলির নতুন সূচি তৈরি হবে বলে রেল সূত্রে খবর।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং