BREAKING NEWS

২০ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  বুধবার ৩ জুন ২০২০ 

Advertisement

ব্যাংক জালিয়াতি মামলায় শহরের সংস্থার ৪৮৩ কোটির সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: May 15, 2019 9:55 am|    Updated: May 15, 2019 9:55 am

An Images

স্টাফ রিপোর্টার, নয়াদিল্লি: নীরব মোদি, মেহুল চোকসিদের পর এবার ফের বড়সড় ব্যাংক জালিয়াতির অভিযোগ। জালিয়াতির অভিযোগে কলকাতা ভিত্তিক এক সংস্থার ৪৮৩ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করল তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। প্রিভেনশন অব মানি লন্ডারিং অ্যাক্ট এর আওতায় তায়াল গ্রুপ অফ কোম্পানি নামের ওই সংস্থার নাগপুরের এক শপিং মল বাজেয়াপ্ত করেছে ইডি। মঙ্গলবার ইডির তরফে জানানো হয়েছে, ওই মলের বাজার দর প্রায় ৪৮৩ কোটি টাকা।

[আরও পড়ুন: প্রচারের চাপে দিশেহারা রবি কিষেণ, মেজাজ হারিয়ে বিজেপি বিধায়ককেই গালিগালাজ]

সূত্রের খবর, ওই সংস্থা ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া এবং অন্ধ্র ব্যাংকের থেকে ২০০৮ সালে ৫২৪ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে তা ভুয়া সংস্থার মাধ্যমে জালিয়াতি করেছিল। ওই মামলাতেই এদিন ইডির তরফে সংশ্লিষ্ট সংস্থার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছে। এই নিয়ে দ্বিতীয়বার পিএমএলএ আইনে এই সংস্থার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করল তদন্তকারী সংস্থা। এর আগেও এই সংস্থার বিরুদ্ধে ইউকো ব্যাংকের থেকে ঋণ নিয়ে তা শোধ না করার অভিযোগ রয়েছে। ইউকো ব্যাংক প্রতারণার ঘটনায় ২০১৬ সালে এই সংস্থার ২৩৪ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছিল ইডি। ইউকো ব্যাংকের সঙ্গে জালিয়াতির ঘটনায় এই ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কলকাতার এক বিশেষ পিএমএলএ কোর্টে মামলা দায়ের করেছে তদন্তকারী সংস্থা।

[আরও পড়ুন: প্রিয়াঙ্কার কনভয় লক্ষ্য করে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান, কী করলেন রাজীবতনয়া?]

মঙ্গলবার ইডির এক শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছেন, “তদন্তকারী সংস্থা সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে ব্যাংকের কাছ থেকে নেওয়া টাকা উদ্ধার করতে সমর্থ হয়েছে। বিচার বিভাগ এখন পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখবে। একই সঙ্গে এই ঘটনায় ব্যাংকের আধিকারিকদের ভূমিকা কী সে বিষয়টি নিয়েও তদন্ত চলছে।” উল্লেখ্য, সিবিআই–এর এক এফআইআরের ভিত্তিতেই কলকাতা ভিত্তিক এই সংস্থার জালিয়াতির তদন্তভার তুলে দেওয়া হয়েছিল ইডির হাতে। সেই তদন্ত করতে গিয়েই ইডি এই সংস্থার বিরুদ্ধে আরও বেশ কয়েকটি জালিয়াতির ঘটনার সন্ধান পায়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement