BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

প্রিয়াঙ্কাকে ‘স্কার্টওয়ালি বাঈ’ বলে কটাক্ষ, বিতর্কে বিজেপি নেতা

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 3, 2019 4:07 pm|    Updated: April 22, 2019 6:22 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশজুড়ে বেজে গিয়েছে নির্বাচনী দামামা৷ ভোটাভুটির দিন যত এগোচ্ছে, ততই চড়ছে উত্তেজনার পারদ৷ ভোটের উত্তপ্ত আবহে জারি রয়েছে বাকযুদ্ধ৷ বেফাঁস মন্তব্য করে বিতর্কে জড়ালেন বিজেপি নেতা জয়করণ গুপ্তা৷ নাম না করে পরোক্ষে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর পোশাক নিয়ে কুৎসিত আক্রমণ করেন তিনি৷  কুকথার সমালোচনায় সরব কংগ্রেস৷

[ আরও পড়ুন: আরএসএসকে অপমান! রাহুল গান্ধীর কাছে ১ টাকা জরিমানা চাইল সংঘ]

ভোটের আগে দলীয় কর্মীদের উজ্জীবিত করতে বিভিন্ন জায়গায় প্রচার চালাচ্ছেন নেতারা৷ তেমনই মীরাটে একটি সভার আয়োজন করে গেরুয়া শিবির৷ সেখানেই প্রধান বক্তা হিসাবে মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন জয়করণ গুপ্তা৷ সভার শুরু থেকেই একাধিক ইস্যুতে বিরোধী কংগ্রেসকে বেশ ঝাঁজালো আক্রমণ করেছিলেন বিজেপি নেতা৷ রাজনীতির ময়দানে কে-ই বা বিরোধীদের রেয়াত করেছেন? এ পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল৷ কিন্তু আচমকাই আক্রমণের সুর আরও চড়াতে শুরু করেন ওই বিজেপি নেতা৷ জয়করণ বলেন, ‘‘কংগ্রেসের এক নেতা খুব সুর চড়িয়ে প্রশ্ন করছেন সত্যি কি আচ্ছে দিন এসেছে? উনি আচ্ছে দিন তো দেখতেই পাচ্ছেন না৷ স্কার্টওয়ালি বাঈ শাড়ি পরে মন্দিরে যাচ্ছেন৷ গঙ্গার প্রতি সম্মান দেখাচ্ছেন৷’’

[ আরও পড়ুন: উর্দি পরে হিন্দি গানের তালে নাচ মহিলা পুলিশকর্মীদের, ভাইরাল ভিডিও]

বিজেপি নেতার এহেন কুরুচিকর মন্তব্য মুহূর্তের মধ্যেই ছড়িয়ে পড়ে নেটদুনিয়ায়৷ তা নিয়ে উঠেছে সমালোচনার ঝড়৷ গেরুয়া শিবিরের কেউই এ প্রসঙ্গে একটি বাক্য খরচ করতেও নারাজ৷ তবে নিজের কথার পালটা সাফাই দিয়েছেন জয়করণ নিজেই৷ তিনি বলেন, ‘‘কোনও নেত্রীর নাম উল্লেখ করে আমি কিছু বলিনি৷ কারও পোশাক নিয়ে আমার আপত্তি নেই৷ শুধুমাত্র উদাহরণ হিসাবেই স্কার্টের কথা বলেছি৷’’

[ আরও পড়ুন: ‘কংগ্রেসের ইস্তাহারের প্রতিশ্রুতি দেশকে টুকরো টুকরো করে দিতে পারে’, দাবি জেটলির]

জয়করণের সাফাই যদিও ক্ষোভের আগুনকে স্তিমিত করতে পারেনি৷ পরিবর্তে তাঁর এই কুরুচিকর মন্তব্যের বিরোধিতায় সরব রাজনীতির কারবারিরা৷ দলের নেতাই যদি মহিলাদের যথার্থ সম্মান দিতে না পারেন, সেক্ষেত্রে তাঁরা দেশবাসীর জন্য কী-ই বা করতে পারেন, সেই প্রশ্ন তুলেছে কংগ্রেস৷ রাজনীতির ময়দান ছেড়ে আক্রমণ কেন ব্যক্তিগত দিকে মোড় নেবে, বিজেপি নেতার ‘কুকথা’র পরিপ্রেক্ষিতে এই প্রশ্নও তুলেছেন কেউ কেউ৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement