BREAKING NEWS

২৩ আষাঢ়  ১৪২৭  বুধবার ৮ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

‘মঙ্গলসূত্র নয়, মাস্ক পরানোই রীতি’, করোনা আবহে বিয়েতে ভাইরাল নবদম্পতির ভিডিও বার্তা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 6, 2020 2:35 pm|    Updated: June 6, 2020 2:57 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পরিবার-পরিজন, আত্মীয়-বন্ধুদের সাক্ষী রেখে নববিবাহিতার গলায় মঙ্গলসূত্র পরিয়ে দেন বর। কিন্তু যুগটা আপাতত করোনার। তাই নববিবাহিত দম্পতি বরং এখন একে অপরকে সেই মারণ ভাইরাসের হাত থেকে রক্ষায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হচ্ছে। তেমনই এক বিয়ের ভিডিও আপাতত নেটিজেনদের মন কেড়েছে, যেখানে স্ত্রীকে ভালবেসে মঙ্গলসূত্র পরিয়ে দেওয়ার বদলে স্বামী মাস্ক পরিয়ে দিচ্ছেন পরম যত্নে। স্ত্রী’ও একই কাজ করছেন। উপস্থিত জনতা তাঁদের এই রীতিতে মুগ্ধ হয়ে করতালি সহযোগে বলছেন – আর ভাইরাস নয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও হু হু করে ছড়িয়ে পড়েছে।

ঘটনা গত মাসের। অসমের এক দম্পতির বিয়েতে নজর কেড়েছিল পাত্র-পাত্রীর মুখে বিখ্যাত অসম সিল্কের মাস্ক। সম্প্রতি তাঁদের আরেকটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, মালা বদলের জায়গায় স্বামী-স্ত্রী একে অপরকে মাস্ক পরিয়ে দিচ্ছেন। করোনা আবহে এভাবে মাস্ক পরে বিয়ে অথবা ভিডিও কলে একে অপরের প্রতি অঙ্গীকারবদ্ধ হওয়ার ঘটনা নতুন কিছু নয়। কিন্তু অসমের এই দম্পতির বিষয়টা কিছুটা বিশেষ বইকি। মঙ্গলসূত্র, বরমাল্য এসব বাদ দিয়ে মাস্ক আঁকড়েই যেভাবে তাঁরা এই মুহূর্তে একে অপরের সবচেয়ে বড় নিরাপত্তার কথা ভেবেছেন, তা অন্যদেরও ভাবাচ্ছে। নেটিজেনরা বলছেন, ‘করোনায় বিয়ের নয়া রীতি’।

[আরও পড়ুন: ফেসবুকে মদের বোতলের ছবি পোস্টের জের! মিডিয়া শাখার আধিকারিকদের সরাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক]

এই ভিডিও নেটিজেনদের একাংশের প্রচুর প্রশংসা কুড়োলেও, আরেকাংশ বেশ সমালোচনা করেছে। মঙ্গলসূত্রের বদলে মাস্ক পরিয়ে দেওয়ার বিষয়টি তাঁদের অনেকের আবার হাস্যকর মনে হয়েছে। অনেকের মনে প্রশ্ন জেগেছে, তাহলে বিবাহ অর্থে সাত জন্ম বন্ধনের যে প্রচলিত ধারণা, তা এভাবে বিয়ে করায় ভেঙে যাচ্ছে না? কারও আবার মন্তব্য, মালার বদলে মাস্ক পরিয়ে দেওয়াই রীতি হলে, সিঁদুরদানের বদলে স্যানিটাইজার দেওয়া হোক। ফলে নানা মুনির নানা মতে ভরে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার পাতা। তবে যতদিন করোনার কামড়, ততদিন বিবাহ প্রথাও যে এভাবে পালটে যাবে, তা নিশ্চিত।

[আরও পড়ুন: ৩ মাসেই মোহভঙ্গ? জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার টুইটার প্রোফাইল থেকে উধাও ‘বিজেপি’]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement