BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ধাক্কা সুপ্রিম কোর্টেও, CAA বিরোধীদের নামে ব্যানার নিয়ে ভর্ৎসনার মুখে যোগী সরকার

Published by: Paramita Paul |    Posted: March 12, 2020 6:34 pm|    Updated: March 12, 2020 6:34 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এলাহাবাদ আদালতের পর এবার সুপ্রিম কোর্টেও ভর্ৎসনার মুখে পড়ল উত্তরপ্রদেশ সরকার। CAA বিরোধী আন্দোলনের পর উত্তরপ্রদেশে যোগী আদিত্যনাথ সরকার আন্দোলনকারীদের চিহ্নিত করতে ‘Name and Shame’ পোস্টার টাঙিয়েছিল৷ সেখানে আন্দোলনকারীদের ছবি দেওয়া ছিল। এবার সেই পোস্টার বা ব্যানার নিয়ে সুপ্রিম কোর্টেও ভর্ৎসনার মুখে পড়ল যোগী সরকার। এমনকী এলাহাবাদ হাই কোর্টের রায়ের উপর কোনও স্থগিতাদেশও জারি করেনি সুপ্রিম কোর্ট। প্রসঙ্গত, এলাহাবাদ হাই কোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল যোগী প্রশাসন।

গোটা লখনউ শহরের বিভিন্ন রাস্তা ঢেকে যায় বড় বড় হোর্ডিং-এ। এই হোর্ডিং-এ ৫৩ জন সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বিরোধী আন্দোলনকারীদের নাম, ছবি-সহ ঠিকানা টাঙিয়ে দেওয়া হয়। ৫৩ জনের মধ্যে রয়েছেন অবসরপ্রাপ্ত আইপিএস অফিসার এস আর দারাপুরি, সমাজকর্মী মহম্মদ শোয়েব, কবি দীপক কবীরের মতো বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বরা। রয়েছে কংগ্রেসের স্থানীয় মহিলা নেত্রী সাদাফ জাফরের নাম-ছবিও। 

[আরও পড়ুন : এবার স্বাস্থ্যবিমার আওতায় করোনার চিকিৎসা, নির্দেশিকা জারি IRDA’র]

বিচারপতিরা যোগী সরকারকে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, “কোনও আইনই এভাবে আন্দোলনকারীদের চিহ্নিত করতে পোস্টার দেওয়াকে সমর্থন করে না৷ এর কোনও আইনি বৈধতা নেই৷” যদিও এ বিষয়টির রায় দেওয়ার জন্য উচ্চতর বেঞ্চ গঠনের কথা জানিয়েছে। একইসঙ্গে এলাহাবাদ হাই কোর্টের রায়ের উপর কোনও স্থগিতাদেশ জারি করেননি বিচারপতিরা। এদিকে উত্তরপ্রদেশ সরকারের তরফে সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহতা জানান, “সুপ্রিম কোর্টে মামলার শুনানি চলছে। তাই পোস্টার এখনই সরিয়ে ফেলার প্রয়োজন নেই।” 

তিন বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ সরকার পক্ষের আইনজীবী তুষার মেহতাকে বলেছেন, সরকারের এই ধরনের পোস্টার দেওয়ার কোনও ক্ষমতা আছে কি না, তাও খতিয়ে দেখতে চেয়েছে আদালত৷ যদিও, যাঁরা আন্দোলনের নামে সরকারি সম্পত্তি ধ্বংস করেছে বা হিংসায় যুক্ত হয়েছে তাঁদেরও ছাড় দেওয়া হবে না বলেও জানিয়েছে আদালত৷

[আরও পড়ুন : করোনা আতঙ্ক: ৭টি দেশের পর্যটকদের জন্য বাতিল ভারতের ভিসা]

প্রসঙ্গত, উত্তরপ্রদেশের ‘Name and Shame’ পোস্টার দ্রুত সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দেয় এলাহাবাদ হাই কোর্ট। বিতর্কিত সমস্ত হোর্ডিং সরিয়ে ১৬ মার্চের মধ্যে হাই কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলকে রিপোর্ট দিতে হবে উত্তরপ্রদেশ সরকারকে। সোমবার এমনই নির্দেশ দিয়েছিল আদালতের প্রধান বিচারপতির বেঞ্চ। একইসঙ্গে যোগী প্রশাসনকে ‘নির্লজ্জ’ বলে কটাক্ষ করেছিলেন বিচারপতি। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement