১২ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ২৬ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

জল্পনার অবসান, আমেঠির পাশাপাশি কেরল থেকেও লড়বেন রাহুল

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: March 31, 2019 12:29 pm|    Updated: April 17, 2019 1:11 pm

Rahul Gandhi to contest from two seats in Ls Polls

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বেশ কিছুদিন ধরে জল্পনা চলছিল। আমেঠির পাশাপাশি কোনও নিরাপদ আসনে লড়তে পারেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। সেই জল্পনাতেই সিলমোহর দিল কংগ্রেস হাইকম্যান্ড। কংগ্রেসের তরফে সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়ে দেওয়া হল, দুটি আসনে লড়ার ব্যপারে সম্মতি দিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি। আমেঠির পাশাপাশি, কংগ্রেস সভাপতি লড়বেন কেরলের ওয়ানাড় থেকে।

[আরও পড়ুন: দাক্ষিণাত্য থেকে আজ লোকসভা ভোটের প্রচার শুরু মমতার]

তিনবার উত্তরপ্রদেশের আমেঠি থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন রাহুল। গতবার আমেঠিতে তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। রাহুলের কাছে পরাজিত হওয়ার পরও লড়াই ছাড়েননি স্মৃতি। আমেঠিতে মাটি কামড়ে লড়াই করছেন তিনি। নিজের সাংসদ (রাজ্যসভার) তহবিলের অধিকাংশ টাকাই তিনি ব্যয় করেছেন আমেঠিতে। তাই মনে করা হচ্ছে, নিজের কেন্দ্রে এবার রাহুলের লড়াইটা কঠিন। স্মৃতি ইরানি এবারেও রাহুলের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তিনি ইতিমধ্যেই হুঙ্কার ছেড়েছেন, আমেঠি থেকে রাহুলের বিদায় ঘণ্টা বাজাবেন। তাই আরেকটি আসন খুঁজছেন কংগ্রেস সভাপতি, যেখানে জয় নিশ্চিত হবে৷

যদিও, কংগ্রেস কেরল থেকে রাহুলের লড়ার বিষয়টিকে সম্পূর্ণ রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত বলছে। কংগ্রেসের তরফে এ কে অ্যান্টনি, রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা, কে সি ভেণুগোপালরা সাংবাদিক বৈঠকে বললেন, দক্ষিণ ভারতের কংগ্রেস কর্মীদের দাবি পূরণ করতেই দক্ষিণ ভারতের এই আসনটিতে লড়ছেন দলের সভাপতি। কংগ্রেস সূত্রের খবর, কেরলে এবার খুব ভাল ফলের ব্যপারে আশাবাদী কংগ্রেস। তাই রাহুল ওয়ানাড়ে লড়লে দলীয় কর্মীরা আরও উৎসাহ পাবে। সেই উদ্দেশ্যেই দক্ষিণে লড়ছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: ইন্দিরা গান্ধী কৃতিত্ব পেলে মোদি কেন পাবেন না? প্রশ্ন রাজনাথের]

স্মৃতি ইরানি অভিযোগ করেছিলেন, তাঁর কাছে হারের ভয়েই কেরলে পালাচ্ছেন রাহুল। সেই তত্ত্বও উড়িয়ে দিয়েছেন কংগ্রেস মুখমাত্র রণদীপ সুরজেওয়ালা। তাঁর যুক্তি, ২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদিও তো দুটি আসন থেকে লড়েছিলেন। রণদীপের প্রশ্ন, ২০১৪ সালে কি তাহলে নরেন্দ্র মোদি ভয় পেয়েই দুটি আসনে লড়েছিলেন? কংগ্রেস মুখপাত্রের দাবি, স্মৃতি ইরানি ইতিমধ্যেই দু’বার হেরেছেন, এবারে হ্যাটট্রিক করবেন তিনি। আমেঠিতে রাহুল জিতবেনই। আমেঠির মানুষের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক রাজনৈতিক নয়, পারিবারিক।

অন্যদিকে, রাহুলের এই সিদ্ধান্ত অত্যন্ত অখুশি বাম দলগুলি। সিপিএম পলিটব্যুরো সদস্য প্রকাশ কারাট বলেছেন, এতেই বোঝা যাচ্ছে, বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করতে চাইছেন না রাহুল, বরং কংগ্রেস চাইছে বামেদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে। একই কথা প্রতিধ্বনিত হয়েছে কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের গলাতেও।

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে