BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভারতে বড়সড় নাশকতার ছক, সতর্ক করলেন গোয়েন্দারা

Published by: Bishakha Pal |    Posted: April 29, 2019 5:43 pm|    Updated: April 29, 2019 5:43 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পুলওয়ামা হামলার আতঙ্ক কাটতে না কাটতেই ফের জোরদার হল জঙ্গিহামলার আশঙ্কা। ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থাগুলির তরফে ইতিমধ্যেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককে এই তথ্য জানানো হয়েছে। গোয়েন্দারা এও জানিয়েছেন, ভারতে সন্ত্রাস ছড়ানোর জন্য জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মহম্মদ ও ইসলামিক স্টেটের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে আইএসআই।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কাছে যে রিপোর্ট পাঠিয়েছে ইন্টেলিজেন্স ব্যুরো, তাতে বলা হয়েছে জইশ ও আইএস জঙ্গিদের সঙ্গে সম্প্রতি একটি বৈঠক করেছে আইএসআই। আফগানিস্তানের জঙ্গিঘাঁটিতে হয়েছে গোপনীয় সেই বৈঠক। সূত্রের খবর, পুলওয়ামার মতো একই ছকে ফের ভারতে হামলা চালাতে চাইছে আইএসআই। আর সেই হামলায় মদত দেবে ফিদায়েঁ জঙ্গিরা। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে, বহুদিন ধরে জইশ-ই-মহম্মদ ও তালিবান আফগানিস্তানে NATO মিলিটারি ফোর্সের সঙ্গে অস্তিত্বরক্ষার লড়াই চালাচ্ছে। সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রেখেছিল ভারত। জইশ ও আইএস জঙ্গিদের মধ্যে জোট বাঁধার প্রচেষ্টা বহুদিনের। কিন্তু সম্প্রতি এর মধ্যে মাথা গলিয়েছে আইএসআই। ভারতের বিরুদ্ধে আবার একটি ষড়যন্ত্র করছে তারা। বালাকোটে এয়ারস্ট্রাইকের পর খানিকটা ব্যাকফুটে চলে গিয়েছিল জইশের প্রধান মাসুজ আজহার। কিন্তু এখন ফের সামনে থেকে চাল দিচ্ছে সে। নতুন করে হামলার জন্য ফের ঘুঁটি সাজাচ্ছে মাসুদ।

[ আরও পড়ুন: ক্ষমতা বাড়িয়ে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ফণী, জারি কড়া সতর্কতা ]

একটি সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, জইশ প্রধান কিছুদিন আগে পাকিস্তানে বাহাওয়ালপুরে নিষিদ্ধ জঙ্গিগোষ্ঠীগুলির নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে। সেখানেই ভারতের হামলা চালানোর ব্যাপারে কথা হয় বলে খবর। হামলার জন্য প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ফিদায়েঁ জঙ্গিদের একত্রিত করার কথাও বলে সে। সূত্রের খবর, খুব কম সময়ের মধ্যে ভারতে হামলা করাতে চাইছে তারা।

সূত্রের মাধ্যমে আরও একটি খবর পাওয়া গিয়েছে। আজহার জানিয়েছে গত ১৭ বছরে সে একবারও হাসপাতাল যায়নি। তার কোনও শারীরিক সমস্যা হয়নি। এদিকে পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী মহম্মদ কুরেশি জানিয়েছেন, পুলওয়ামা হামলার পর অসুস্থ হয়ে পড়ে আজহার। অসুস্থতা এতটাই, যে নিজের বাড়ির বাইরে বেরোতে পারছে না সে। দু’জনের দু’ধরণের মন্তব্যে আরও বেশি করে উঠে আসছে হামলার সম্ভাবনা। মনে করা হচ্ছে, আইএসআই ও জঙ্গি সংগঠনগুলি এভাবেই বিভ্রান্ত করতে চাইছে। আর এই বিভ্রান্তির মাঝেই জঙ্গি হানার ছক সাজিয়ে ফেলতে চাইছে তারা। ভারতের মাটিতে একসঙ্গে বড়সড় নাশকতার ছক কষছে পাকিস্তান ও জঙ্গিরা।

[ আরও পড়ুন: ‘প্রজ্ঞার বিরুদ্ধে প্রমাণ ছিল, ওকে টিকিট দেওয়া ঠিক হয়নি’, বিজেপিকে তোপ জোটসঙ্গীর ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement