BREAKING NEWS

১১ কার্তিক  ১৪২৭  বুধবার ২৮ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

নারকেলডাঙায় তরুণীকে খুনের চেষ্টার কিনারা, ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই পুলিশের জালে অভিযুক্ত

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: September 19, 2020 8:53 am|    Updated: September 19, 2020 8:58 am

An Images

ছবি: প্রতীকী

অর্ণব আইচ: নারকেলডাঙায় তরুণীকে খুনের চেষ্টার (Attempt to murder at Narkeldanga) অভিযোগের তদন্তে নেমে ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করল এন্টালি থানার (Entally PS) পুলিশ। শুক্রবার রাতে ট্যাংরার ডিসি দে রোড থেকে বছর চব্বিশের মহম্মদ রাজা নামে ওই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে, তরুণীর সঙ্গে রাজার সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। এন্টালি কামারডাঙা আবাসনের একটি ঘরে তরুণীকে যেত সে। বৃহস্পতিবার রাতে সেখানেই কয়েকটি বিষয় নিয়ে উভয়ের গোলমাল হয়। এর পরই তাঁকে ইট দিয়ে মেরে খুনের চেষ্টা করা হয় বলে জানতে পেরেছে পুলিশ। ধৃতকে জেরা করে আরও বিস্তারিত জানতে চাইছেন তদন্তকারীরা।

ধৃত মহঃ রাজা

বৃহস্পতিবার রাতে পূর্ব কলকাতার এন্টালি কামারডাঙা রোডের রেল আবাসন থেকে এক তরুণীকে রক্তাক্ত অবস্থায় পুলিশ উদ্ধার করে হাসপাতালে ভরতি করে। শুক্রবার জ্ঞান ফিরলে তিনি জানান, রাজা নামে এক যুবক তাঁকে প্রচণ্ড মারধর করেছে। ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করা হয়। এরপর তাঁকে শৌচালয়ে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় রাজা। ওই যুবকের সঙ্গে দিন কয়েক আগে তাঁর একটি সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। দু’জনই নেশায় আসক্ত ছিল। ওই ফ্ল্যাটে নিয়মিত নেশা করত তারা। সম্প্রতি টাকাপয়সা নিয়ে তাদের মধ্যে বিবাদ বাঁধে। এরপর বৃহস্পতিবার ফের বচসা এবং খুনের চেষ্টা।

[আরও পডুন: রাস্তা মেরামতি না করেই ভুয়ো তথ্য, পুরসভার এক ডিজিকে শোকজ করলেন ফিরহাদ]

আক্রান্ত তরুণীর থেকে পাওয়া এসব তথ্যের ভিত্তিতে সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে অভিযুক্তের সন্ধান শুরু করে এন্টালি পুলিশ। তরুণীর বর্ণনা শুনে স্কেচও আঁকা হয়। এরপর ঠিক ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কড়েয়া এলাকা থেকে মহম্মদ রাজাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ সূত্রে খবর, জেরায় তরুণীকে মারধরের কথা স্বীকার করেছে অভিযুক্ত রাজা। তবে ঠিক কী নিয়ে তাদের মধ্যে বিবাদ থেকে খুনের চেষ্টার মতো কাণ্ড ঘটে গেল, তা নিয়ে বিস্তারিত জানতে চাইছে পুলিশ। তাকে আজ আদালতে পেশ করে নিজেদের হেফাজতে চাইতে পারেন তদন্তকারীরা।

[আরও পডুন: পুলিশ আধিকারিকদের নামে ভুয়ো প্রোফাইল, অপরাধী ধরতে নয়া পরামর্শ CID’র]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement