BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

অমানবিক! ক্যানসার আক্রান্ত মেয়েকে শিকলে বেঁধে ডাক্তার খুঁজতে ব্যস্ত বাবা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: December 9, 2019 4:58 pm|    Updated: December 9, 2019 4:58 pm

An Images

ফাইল ছবি।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের অমানবিকতার নজির রাজ্যের সরকারি হাসপাতালে। এনআরএস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ক্যানসার এক রোগীকে ফিরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল অন্তত চারটি বিভাগের বিরুদ্ধে। সুদূর মহিষাদল থেকে আসা রোগীর পরিবারের আত্মীয়রা তাঁকে বেঁধে রাখলেন শিকল দিয়ে। হাসপাতাল চত্বরে এই ছবি দেখে শুরু হয়েছে সমালোচনা। এ নিয়ে কর্তৃপক্ষের মুখে কুলুপ।

সূত্রের খবর, মহিষাদলের বাসিন্দা মাঝবয়সী এক মহিলা বেশ কয়েকমাস ধরে ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত। তাঁর চিকিৎসা চলছে এনআরএস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। প্রতিবারই মহিষাদল থেকে কলকাতায় এসে তাঁকে চিকিৎসা করান পরিবারের সদস্যরা। সম্প্রতি শুরু হয়েছে কেমোথেরাপি। পরিবারের সদস্যদের দাবি, কয়েকটি কেমোর পরই রোগী মানসিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়েছেন। অসংলগ্ন আচরণ করছেন। মাঝেমধ্যেই তিনি বাড়ির বাইরে অন্যত্র চলে যান বলে অভিযোগ বাড়ির লোকজনের। নজরদারির জন্য তাঁকে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয় বলেও জানিয়েছেন তাঁরা।

[ আরও পড়ুন: অগ্নিমূল্য শাক-সবজি, বাজারে গিয়ে সরেজমিনে নজরদারি মুখ্যমন্ত্রীর]

কিন্তু মহিলার মানসিক পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপ হতে থাকায় রবিবার ফের তাঁকে চিকিৎসার জন্য আনা হয় কলকাতায়। এনআরএস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পৌঁছে তাঁকে ভরতির ব্যবস্থা করতে থাকে পরিবার। সুরাহা মেলে না। অভিযোগ, এনআরএসের অন্তত চারটি বিভাগ তাঁকে ফিরিয়ে দেয়। মেডিসিন, হেমাটোলজি, রেডিওলজি এবং সাইকিয়াট্রি – এই চারটি বিভাগে দিনভর ঘুরে ঘুরেই সময় চলে যায় অনেকটা। রোগীর বাবা জানিয়েছেন, এই বিভাগ থেকে ওই বিভাগে ঘোরাঘুরি করতে করতে বিরক্ত হয়ে পড়েন ওই রোগীও। তিনি হাসপাতাল ছেড়ে চলে যেতে চান।

আর তখনই পরিবারের সদস্যরা চিরাচরিত উপায়ে হাসপাতালের মধ্যেই তাঁর পা শিকল দিয়ে আটকে তালা লাগিয়ে দেন। তারপর তিনি ফের ডাক্তারের খোঁজে গিয়েছেন। কিন্তু আউটডোরে দেখানোর সময় শেষ হওয়ায় সাইকিয়াট্রি বিভাগে কোনও চিকিৎসক ছিলেন না, এমকী বিভাগে তালা দেওয়া ছিল বলেও জানিয়েছেন তাঁর বাবা। হাসপাতাল চত্বরে এমন অমানবিক দৃ্শ্য চোখে পড়ায় হতচকিত হয়ে যান অনেকেই। ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত একজন রোগীকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষই বা কেন এভাবে ফেলে রাখবে, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠে যায়।

[ আরও পড়ুন: ডেঙ্গুর দাপট অব্যাহত, এবার মৃত শ্যামপুকুরের যুবক]

রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিষেবার হাল ফেরাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার একাধিক উদ্যোগ নিয়েছে। শহর থেকে জেলায় – সরকারি হাসপাতালগুলির পরিষেবা বৃদ্ধি করা হয়েছে। বিনামূল্যে চিকিৎসাও শুরু হয়েছে। যার সুফল পেয়েছেন রাজ্যের বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক স্তর থেকে উঠে আসা মানুষজন। কিন্তু তা সত্ত্বেও কিছু নেতিবাচক ঘটনা এড়ানো যাচ্ছে না। আজ এনআরএসে ক্যানসার আক্রান্ত মহিলাকে শিকলে বাঁধার ছবিই তার প্রমাণ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement