৩১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  শনিবার ১৫ জুন ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

৩১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  শনিবার ১৫ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সমকামিতা ভারতে বৈধ। কিন্তু সুপ্রিম কোর্টের রায়ে এই বৈধতা দেওয়া হলেও আসলে আমাদের সমাজে একটা ট্যাবু এখনও রয়ে গিয়েছে। তা ভেঙে অনেকেই সাহস করে নিজেদের সমকামী সম্পর্ক নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলতে ভয় পান। কিন্তু, এবার সেই ভয়-সংকোচ সব ঝেড়ে ফেললেন এশিয়াডে পদকজয়ী অ্যাথলিট দ্যুতি চাঁদ। জানিয়ে দিলেন পাঁচ বছর ধরে এক তরুণীর সঙ্গে সমকামী সম্পর্কে আছেন তিনি। সেই সঙ্গে দ্যুতি আরও জানিয়েছেন, ওই মেয়েটির সঙ্গেই আগামী দিনে সম্পর্ক স্থাপন করতে চান তিনি। দ্যুতি একথা ফাঁস করার পরই পরিবার তাঁর উপর অত্যাচার চালাচ্ছে বলে অভিযোগ অ্যাথলিটের।

[আরও পড়ুন: শৃঙ্গজয়ের নেশা প্রাণ কাড়ল আরও এক পর্বতারোহীর, এখনও নিখোঁজ ১ বাঙালি]

রবিবারই দ্যুতি জানিয়েছিলেন, “আমি আমার গ্রামেরই একটি মেয়ের সঙ্গে পাঁচ বছর ধরে সম্পর্কে আছি। ও ভুবনেশ্বর কলেজে বিএ দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। সে আমাদেরই আত্মীয় হয়, এবং যখনই আমি বাড়ি ফিরি তখনই ওর সঙ্গে সময় কাটাই। ও আমার আত্মার আত্মীয়, আমি ওর সঙ্গেই জীবন কাটাতে চাই।” তিনি আরও বলেন, “আমি এমন একজনকে খুঁজে পেয়েছি যে আমার সোলমেট। আমার মনে হয় প্রত্যেকেরই এই স্বাধীনতা থাকা উচিত যে তাঁরা নিজেদের পছন্দমতো মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করতে পারেন। এটা প্রত্যেকেরই ব্যক্তিগত পছন্দ। এবং আমি এই সমলিঙ্গের সম্পর্কেই থাকতে চাই। যদিও, আপাতত আমার ফোকাস রয়েছে অলিম্পিক এবং বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে। কিন্তু ভবিষ্যতে ওর সঙ্গেই থাকতে চাই।”

[আরও পড়ুন: ‘মুখোশের আড়ালে কী ছিল বুঝিনি’, কংগ্রেসে যোগ দিয়েই মোদিকে তোপ বিজেন্দরের]

উল্লেখ্য, দ্যুতিচাঁদ ২০১৮ এশিয়াডে জোড়া রৌপ্য পদক পেয়েছিলেন। ১০০ এবং ২০০ মিটারের ফাইনালে গিয়েও অল্পের জন্য সোনা হাতছাড়া করেন দ্যুতি। এর মধ্যে ১০০ মিটারের পদকটি ছিল গত ২০ বছরে ভারতের এশিয়াডে জেতা প্রথম পদক, অন্যদিকে ২০০ মিটারের পদক ছিল ১৬ বছরে ভারতের জেতা প্রথম পদক। এ হেন রেকর্ডের মালিকের এই সমলিঙ্গের সম্পর্ক পরিবার স্বীকার করছে না। দ্যুতির অভিযোগ তাঁর সমলিঙ্গের সম্পর্কের কথা জানার পর তাঁর পরিবারের তরফে, বিশেষ করে তাঁর দিদি তাঁকে হুমকি দিচ্ছেন। তাঁকে ঘরছাড়া করার পাশাপাশি জেলে পাঠানোরও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং