৪ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ঘোষণার আগেই দেওয়ালে বিজেপি প্রার্থীর নাম! দুর্গাপুরে ষড়যন্ত্রের গন্ধ

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 24, 2019 7:31 pm|    Updated: March 24, 2019 7:31 pm

BJP candidate's name in wall raises controversy in Burdwan-Durgapur

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: বহু দেরিতে ঘোষণা করেও পশ্চিমবঙ্গের ৪২ আসনে  প্রার্থীতালিকা এখনও দিতে পারেনি বিজেপি৷ তারউপর প্রার্থী নিয়ে জেলায় জেলায় অন্তর্দ্বন্দ্বের শেষ নেই৷ এসবের আগেই দেখা গেল, সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে এই কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থীর দেওয়াল লিখন৷ আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপি এই কেন্দ্রে এখনও প্রার্থীপদ ঘোষণা করেনি। তার আগেই দেওয়াল জুড়ে বিজেপির প্রার্থীর সমর্থনে প্রচার। কি হোয়াটস অ্যাপ, কি ফেসবুক – সব জায়াগায় ভাইরাল বধর্মান–দুর্গাপুর কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী রুপালী বাউরি। শুধু সোশ্যাল মিডিয়ায় নয়, দুর্গাপুরের বেশ কিছু দেওয়ালেও নাকি ছড়িয়ে পড়েছে বিজেপির এই দেওয়াল লিখন। সোশ্যাল মিডিয়াতে এই পোস্ট ভাইরাল হতেই নানা কমেন্ট আসতে থাকে। এসব দেখে বিজেপি নেতৃত্বের মাথায় হাত! প্রার্থীই ঘোষণা হলো না, কোথা থেকে চলে এলেন রুপালী বাউরি! আগে থেকেই প্রার্থীর নামে দেওয়াল লিখে প্রতিপক্ষের কেউ কি তবে বিজেপিকে চাপে রাখার কৌশল নিল, নাকি দলের মধ্যেই কোন্দল? এই খুঁজতেও বেশ বেগ পেতে হয় বিজেপির জেলা নেতৃত্বকে। এমনিতেই হাতে গোনা কয়েকদিন পরই ভোট। কিন্তু প্রার্থী ঘোষণা হয়নি। তাই প্রবল চাপেই আছে দল। এই সমস্যা আবার উড়ে এসে জুড়ে বসেছে৷ 

                                [আরও পড়ুন: ‘ভোট নয়, মানুষকে পাশে চাই’, প্রচার সভায় বার্তা নুসরতের়়]

বেশ কিছুদিন ধরে এনিয়ে বিতর্ক চলার পর অবশেষে বোঝা গেল আসল বিষয়টা। ‘ভুয়ো’ প্রচারের সুলুকসন্ধান করে বিজেপি নেতৃত্বই সামনে আনল সত্যিটা। গত দুর্গাপুর নগর নিগম নির্বাচনে বিজেপির ২৮ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী ছিলেন রুপালী বাউরি। তার নামে এখনও দেওয়াল লিখন আছে ২৮ নম্বর ওয়ার্ডেরই সগড়ভাঙ্গার চড়কতলায়। সেই দেওয়াল লিখনই কে বা কারা সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করে অযথা কেউ বা কারা বিড়ম্বনার মধ্যে ফলতে চাইছে বিজেপিকে।

                                    [আরও পড়ুন:  উন্নয়নকে সামনে রেখে প্রচারে আত্মবিশ্বাসী কল্যাণ, মাদলের তালে পা মেলালেন রত্না]

আর এই সত্যি জানতে পেরে স্বস্তিতে বর্ধমান-দুর্গাপুরের বিজেপি শিবির। বিজেপির জেলা সভাপতি লক্ষণ ঘড়াই জানান, “ইচ্ছাকৃতভাবেই দলকে বদনাম করতে কেউ বা কারা এটা করেছিল। আমাদের ধারণা, শাসকদলেরই কাজ এটি। যাই হোক অবশেষে আসলটা আমরা জানতে পেরেছি। তবে এইভাবে চক্রান্ত করে বিজেপিকে দুর্বল করা যাবে না।” রহস্যের তো সমাধান হল৷ কিন্তু প্রশ্ন উঠছে, কেন পুরভোটের দেওয়াল লিখন এখনও আছে? তা কেন মুছে দেওয়া হয়নি?

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে