BREAKING NEWS

২০ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘ফ্যাসিস্ট সরকারের হিন্দুরাষ্ট্রের এজেন্ডা’, CAB নিয়ে তোপ ইমরানের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: December 10, 2019 4:50 pm|    Updated: December 10, 2019 4:52 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে বরাবরই আন্তর্জাতিক মঞ্চে সরব পাকিস্তান। উপত্যকায় ৩৭০ ধারা রদ নিয়ে চেঁচিয়ে কার্যত মুখে রক্ত তুলে ফেলেছিলেন সে দেশের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তবে লাভ হয়নি। ইসলামাবাদের ভাঁড়ার সেই মা ভবানী। এহেন পরিস্থিতিতে ফের ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে মুখ খুলেছেন ইমরান।

একটি টুইটে বিলটির নিন্দা করে ইমরান লেখেন, “ভারতের লোকসভায় পাশ হওয়া নাগরিকত্ব সংশোধন বিলটির আমরা তীব্র প্রতিবাদ করছি। এই বিলটি মানবাধিকার আইন ও ভারত-পাক দ্বিপাক্ষিক চুক্তির উলঙ্ঘন করছে। এই বিলটি আরএসএস-এর হিন্দুরাষ্ট্র নির্মাণের দিকে এগিয়ে যাওয়ার ফ্যাসিস্ট মোদি সরকারের চেষ্টা বই কিছু নয়।” তবে, ইমরান খান মুখে যাই বলুন না কেন, ইসলামিক পাকিস্তানে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা বিশ্বের অগোচর নয়। হিন্দু ও অন্য সংখ্যালঘুদের উপর ওই দেশে অত্যাচারের ঘটনা নতুন কিছু নয়। ফলে ইমরানের মন্তব্যে আন্তর্জাতিক মঞ্চের দৃষ্টিভঙ্গিতে বিশেষ কোনও তারতম্য ঘটবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। অনেকেই বলছেন, ইসলামিক দেশ হয়ে ভারতকে ‘হিন্দুরাষ্ট্রের’ খোঁচা দেওয়া পাকিস্তানকে মানায় না।

সোমবার লোকসভায় তপ্ত আলোচনার পর মধ্যরাতে পাশ হয় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ২০১৯। বুধবার, রাজ্যসভায় বিলটি পেশ হওয়ার কথা রয়েছে। তবে সংসদের উচ্চকক্ষে সংখ্যাগরিষ্ঠতা না থাকায়, বিলটি পাশ করাতে কীভাবে ‘ফ্লোর ম্যানেজ’ করবে কেন্দ্রের শাসকদল তাই দেখার। ইতিমধ্যেই লোকসভায় বিলটিকে সমর্থন করেছে, জেডি (ইউ), শিব সেনা, অকালি দল, বিজেডি, এআইডিএমকে, ওয়াইএসআর কংগ্রেস। বিরোধিতা করেছে, কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস, সিপিএম, মিম, ডিএমকে। বিশ্লেষকদের মতে, এখন উচ্চকক্ষের সদস্য সংখ্যা ২৩৮। উচ্চকক্ষে ৭টি আসন ফাঁকা থাকায় ম্যাজিক ফিগার দাঁড়িয়েছে ১২০। এই মুহূর্তে রাজ্যসভায় এনডিএ সাংসদদের সংখ্যা ১০৫। যাঁর মধ্যে বিজেপি-৮৩, জেডি (ইউ)-৬, অকালি দল-৩, এলজেপি-১ ও আরপিআই-১ ও মনোনীত সদস্য-১১। ফলে বিলটি পাশ করিয়ে নিতে মোদি সরকারে সেই অর্থে বিশেষ বেগ পেতে হবে না।

[আরও পড়ুন: নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পেশের জের, অমিত শাহকে নিষিদ্ধ করার সুপারিশ মার্কিন কমিশনের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement