BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ৪ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কাশ্মীরের জঙ্গিদের সঙ্গে যোগাযোগই লক্ষ্য, নিয়ন্ত্রণরেখায় মোবাইল টাওয়ার বসাচ্ছে পাকিস্তান

Published by: Paramita Paul |    Posted: October 19, 2020 9:34 pm|    Updated: October 19, 2020 10:18 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতের সঙ্গে কিছুতেই এঁটে উঠতে পারছে না পাকিস্তান। এবার কাশ্মীরে প্রবেশ করা জঙ্গিদের সঙ্গে সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করতে নয়া ছক কষছে ইসলামাবাদ। সেই উদ্দেশ্যপূরণ করতেই এবার নিয়ন্ত্রণরেখা (এলওসি) বরাবর মোবাইলের নতুন টাওয়ার বসাচ্ছে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই। যাতে সন্ত্রাসবাদীদের সঙ্গে তাঁদের যোগাযোগ কোনওভাবেই বিচ্ছিন্ন না করতে পারে ভারত সরকার।

চলতি বছরের শুরু থেকেই কাশ্মীরে জঙ্গি দমনে উল্লেখ্যযোগ্য সাফল্য পেয়েছে ভারতীয় সেনা। জঙ্গিঘাঁটি গুড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি সন্ত্রাসবাদি গোষ্ঠীর বহু নেতাকে নিকেশ করেছে সেনা। ফলে কর্যত ব্যাকফুটে পাকিস্তান। এবার নতু করে ভারতের ক্ষতি করতে কোমর বাঁধছে তারা। কীভাবে?

[আরও পড়ুন : বিশ্বমঞ্চে ফের গর্বিত ভারত, ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলায় শান্তি পুরস্কার পেলেন নোবেলজয়ী অমর্ত্য সেন]

নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর বেশকিছু মোবাইল টাওয়ার বসাচ্ছে। যাতে কাশ্মীরে পাকিস্তানি ফোনের টাওয়ার মেলে। ভারতীয় গোয়েন্দা সূত্রে খবর, পাক অধিকৃত কাশ্মীর, গিলগিট-বালটিস্তানের নিয়ন্ত্রণরেখায় বর্তমানে মোট ২৮টি মোবাইল টাওয়ার রয়েছে। এসসিও সম্প্রতি আরও ৩৮টি টাওয়ার বসাতে উদ্যোগী হয়েছে। তার জন্য নিয়ন্ত্রণরেখা লাগোয়া জায়গাও চিহ্নিত করা হয়ে গিয়েছে। বারামুলার বিপরীতে চামে, সোপোরের অদূরে লেপা, মুজফ্ফরাবাদ এবং আপার নীলম উপত্যকার বিভিন্ন এলাকা রয়েছে ওই তালিকায়। পাশাপাশি, পুরনো টাওয়ারগুলিও দ্রুতগতিতে সেগুলি আপডেট করার কাজ চলছে বলে খবর।

[আরও পড়ুন : এই মাইনেই সংসার চলছে না!‌ ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দিতে পারেন বরিস জনসন]

পাকিস্তানের সরকারি সংস্থা ‘স্পেশাল কমিউনিকেশনস অর্গানাইজেশন’ (এসসিও) সেগুলির মাধ্যমে অনুপ্রবেশকারী জঙ্গি এবং জম্মু ও কাশ্মীরের বাসিন্দাদের ‘বিকল্প’ মোবাইল ও ইন্টারনেট পরিষেবা দেওয়ার চেষ্টা চালায়। পাকিস্তানি নেটওয়ার্ক ব্যবহার করলে, ভারতীয় গোয়েন্দারা সেই সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে পারবে না। ভারতীয় গোয়েন্দা সূত্রে খবর, পাক অধিকৃত কাশ্মীরের ওই টাওয়ারের সিগনাল আটকাতে ভারতের তরফে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর ১৮টি জিএসএম অ্যান্টেনা বসানো হবে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement