হারের জের: অশ্বিনদের পোস্টারে আগুন, নেটদুনিয়ায় বিরাটের হাতে কমোড

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল, তার উপর মুখোমুখি চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তান। গোটা দেশ যখন ধরে নিয়েছে, টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচের মতোই হাসতে হাসতে জিতবেন বিরাট কোহলিরা, তখনই ঘটল পুরো উলটো ঘটনা। ওভালের মাটিতে বিরাট বিপর্যয়। ১৮০ রানে গতবারের চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে ২০০৭ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ফাইনালে হারের বদলা নিল পাকিস্তান। কিন্তু ম্যাচ শেষ হতেই ধরা পড়ল অন্য আর এক ছবি। একদিকে শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিরাট, জাদেজা ও ভারতীয় খেলোয়াড়দের নিয়ে ট্রোল। অন্যদিকে, ম্যাচ হেরে যাওয়ায় গোটা দেশের বেশ কিছু জায়গায় শুরু হয়েছে বিক্ষোভ।

[ক্রিকেটে বিপর্যয়ের দিন পাকিস্তানকে হকিতে দুরমুশ করল ভারত]

এদিন ম্যাচ হারার পরেই কানপুরে শুরু হয়ে গিয়েছে বিক্ষোভ। ভারতীয় খেলোয়াড়দের ছবিতে আগুন ধরানো হয়। অনেকেই বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। এদিকে, উত্তেজনা ছড়াতে পারে এই আশঙ্কায় বিরাট-ধোনিদের বাড়ির সামনে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা। তাঁদের বাড়ির বাইরে মোতায়েন করা হয়েছে নিরাপত্তাবাহিনী।

 

এদিকে কানপুর, হরিদ্বার হতাশায় টিভি সেট ভাঙচুর করল ভারতীয় সমর্থকরা।

কাপ হাতছাড়া হয়েছে বিরাটের। মন ভেঙেছে কোটি কোটি ভারতবাসীর। এর মধ্যেই অবশ্য মজা করতে ছাড়ছেন না কেউ কেউ। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির বদলে বিরাট হাতে ধরে রয়েছেন কমোডের মতো তৈরি একটি কাপ। হ্যাঁ, শুনতে অবাক লাগলেও এমনটাই ঘটেছে। টুইটারে এক ব্যক্তি ওই ছবিটি টুইট করেছেন। সঙ্গে লিখেছেন, ‘ভারতের জন্য সবচেয়ে প্রয়োজনীয় কাপটি জিতেছেন বিরাট।’ এখানেই শেষ নয়, পাণ্ডিয়ার আউট নিয়েও শুরু হয়েছে ট্রোল। তাঁকে এবং জাদেজাকে নিয়ে বেশ কিছু ছবিও ইতিমধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এমনকী হাসাহাসি হচ্ছে বুমরাহর নো-বল করা নিয়েও। যদিও ভারতীয় সমর্থকরাও এর জবাব দিচ্ছেন। এদিন ওয়ার্ল্ড হকি লিগের ম্যাচে ভারতের কাছে ৭-১ গোলে পর্যুদস্ত হয়েছে পাকিস্তান হকি দল। সেই প্রসঙ্গই তুলে আনছেন তাঁরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *