২ ভাদ্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২০ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২ ভাদ্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২০ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

বাবুল হক, মালদহ:  তৃণমূলের আক্রমণে নাজেহাল কংগ্রেস। বাধ্য হয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ এনে নির্বাচনী প্রচার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিলেন উত্তর মালদহ লোকসভা কেন্দ্রের কংগ্রেস প্রার্থী ইশা খান চৌধুরি। জানা গিয়েছে, সোমবার নির্বাচনী প্রচারে বেরোননি তিনি। তবে এদিনের মতো প্রচার বন্ধ থাকলেও, এলাকায় একটি ধিক্কার মিছিলে পা মেলান কংগ্রেসের কর্মী,সমর্থকরা।  ইতিমধ্যেই বিষয়টি জানিয়ে মহকুমা শাসকের কাছে স্মারকলিপি জমা দিয়েছে কংগ্রেস। পাশাপাশি, গোটা ঘটনায় নির্বাচন কমিশনের হস্তক্ষেপের দাবিও জানিয়েছেন ইশা খান চৌধুরি।

[আরও পড়ুন: সিপিএম-বিজেপির কাছে বিক্রি হয়ে গিয়েছে কংগ্রেস, অধীরের ডেরায় অভিযোগ মমতার]

জানা গিয়েছে, রবিবার সন্ধেয় চাঁচোলের নুরগঞ্জে কংগ্রেসের সভার আয়োজন করা হয়। অভিযোগ, তাঁদের নির্বাচনী জনসভা ভণ্ডুল করতেই সভাস্থলে চড়াও হয় একদল তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতী। সভাস্থলের চেয়ার টেবিল, মাইক ভাঙচুরের অভিযোগ ওঠে দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, তাতে বাধা দেওয়ায় তিন জন কংগ্রেস কর্মীকে লোহার রড দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়। খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে যায় বিশাল পুলিশ বাহিনী। নামানো হয় র‌্যাফ। তার মাঝেই চলে সভা। যদিও কংগ্রেসের অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল নেতৃত্ব। 

VANGCHUR

এরপরই প্রচার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেন উত্তর মালদহ লোকসভা কেন্দ্রের কংগ্রেস প্রার্থী ইশা খান চৌধুরি। এ প্রসঙ্গে মালদহ জেলা কংগ্রেসের সভাপতি মোস্তাক আলম বলেন, ‘আমরা মহকুমা শাসক সব্যসাচী রায়ের কাছে স্মারকলিপি জমা দিয়েছি। প্রচারও আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে। পুলিশের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনেও অভিযোগ জানিয়েছি।’ পাশাপাশি, পুলিশকে কাঠগড়ায় তুলে তিনি বলেন, রাজ্য পুলিশের মদতেই এসব হচ্ছে। তৃণমূল যথেচ্ছভাবে সন্ত্রাস চালাচ্ছে।’  কংগ্রেস প্রার্থীর অভিযোগে সহমত পোষণ করেছে বিজেপিও। তবে তৃণমূলের অভিযোগ, কংগ্রেস কর্মীরা তৃণমূলের গ্রাম পঞ্চায়েতের এক সদস্যকে মারধর করেছে। এরপর নিজেদের আড়াল করতে মিথ্যা অভিযোগ তুলেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। 

[আরও পড়ুন: চায়ের দোকানের আড়ালে গাঁজার রমরমা কারবার, বনগাঁয় ধৃত দম্পতি]

আক্রমণ প্রসঙ্গে মালদহ জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি তথা দক্ষিণ মালদহ লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী আবু হাসেম খান চৌধুরীর মন্তব্য, “পায়ের তলার মাটি সরে যাওয়ায় এমন অভিযোগ করছে বিরোধী দলগুলি।” তবে জেলা জুড়ে উত্তপ্ত পরিস্থিতির কথা মেনে নিয়েছেন তিনি। পুলিশের সূত্রে খবর, দু’পক্ষই অভিযোগ করেছে। দু’তরফের অভিযোগই খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন চাঁচোলের আইসি সুকুমার ঘোষ। সোমবারও থমথমে ওই এলাকা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং