১২ আষাঢ়  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

১২ আষাঢ়  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে উদ্বেগে গোটা দেশ। মুহূর্তের মধ্যে পালটে যাচ্ছে ফলাফল। উত্তেজনার আঁচ পড়েছে টলিউড শিবিরেও। সিনেমাকে সরিয়ে রেখে আজ ভোটের ফলাফলের দিকে নজর বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিরও। কারণ, এখান থেকে পাঁচজন এবছর তৃণমূলের হয়ে লড়ছেন। শতাব্দী রায়, মুনমুন সেন, মিমি চক্রবর্তী, নুসরত জাহান ও দেব।

যদিও লকেট চট্টোপাধ্যায় ও বাবুল সুপ্রিয়র মতো দুই হেভিওয়েট সেলেব্রিটি বিজেপির হয়ে লড়ছেন, কিন্তু টলিউডের বেশিরভাগই সেলেব্রিটিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভায় দেখা যায়। ফলে তৃণমূলের জেতা-হারা নিয়ে পারদ চড়ছে। ফলাফলের ট্রেন্ড বলছে, এক মুনমুন ছাড়া তৃণমূল কংগ্রেসের বাকি সেলেব্রিটি প্রার্থীরা এগিয়ে রয়েছেন। মুনমুনে সেনের ভাগ্যে আদৌ শিকে ছিঁড়বে কিনা, তা নিয়ে বিশেষজ্ঞদের মনেও চলছে দ্বন্দ্ব। তবে মুনমুন কিন্তু কার্যত জনগণের রায়কে মেনে নিয়েছেন। বলেছেন, জনগণ যদি এটাই চেয়ে থাকে, তাহলে তাই শিরোধার্য।

[ আরও পড়ুন: বলিউডে ফের বিবাহবিচ্ছেদ! আলাদা থাকছেন ইমরান এবং অবন্তিকা ]

এবছর আসানসোল থেকে লড়ছেন অভিনেত্রী মুনমুন সেন। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বীও এক সেলেব্রিটি। বাবুল সুপ্রিয়। বিজেপির হয়ে আসানসোল কেন্দ্র থেকে লড়ছেন তিনি। ভোট প্রচারের সময়ই দেখা গিয়েছেন বাবুল এলাকায় যথেষ্ট অ্যাক্টিভ। তৃণমূলের পোস্টার ছেঁড়া থেকে শুরু করে, অনেক ক্ষেত্রেই প্রকাশ্যে তৃণমূল বিরোধিতা করতে দেখা গিয়েছে। মুনমুনকে এত সক্রিয়ভাবে চরমপন্থা নিতে দেখা যায়নি। কিন্তু তাঁর জনপ্রিয়তা বাবুল অপেক্ষা কম ছিল না। ফলে মনে করা হয়েছিল, লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি। কিন্তু বৃহস্পতিবার গণনা শুরু হওয়ার পর থেকে দেখা যাচ্ছে পিছিয়ে পড়ছে মুনমুন।

ঘাটালে কিন্তু লড়াই হচ্ছে হাড্ডাহাড্ডি। গণনা শুরু হওয়ার পর দেখা গিয়েছিল এই কেন্দ্র থেকে এগিয়ে ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী দীপক অধিকারী বা দেব। কিন্তু সময় যত এগোতে থাকে, দেখা যায় দেবকে টক্কর দিতে এগিয়ে এসেছেন বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষ। একসময় তো তিনি দেবকে পিছিয়ে ফেলে দেন। কিন্তু পরক্ষণে আবার এগিয়ে যান দেব। ঘাটালের পরিস্থিতি এখন বেশ উত্তেজক। বলা যেতে পারে, হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে দেব ও ভারতীর মধ্যে।

এদিকে যাদবপুর কেন্দ্রে সিপিএম বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য ও বিজেপির অনুপম হাজরাকে এই মুহূর্তে পিছনে ফেলে এগিয়ে গিয়েছেন তৃণমূলের মিমি চক্রবর্তী। মনে করা হচ্ছিল এই কেন্দ্রে মিমির লড়াইটাই সবচেয়ে কঠিন হবে। কারণ তিনি রাজনীতির আঙিনায় নতুন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত ট্রেন্ড বলছে মিমির হারের সম্ভাবনা কম। বীরভূমে শতাব্দী রায় আর বসিরহাটে নুসরত জাহান প্রায় অপ্রতিদ্বন্দ্বী। দু’জনের দৌড়ই অব্যাহত। এখনও পর্যন্ত যা ট্রেন্ড, তাতে নুসরত ও শতাব্দীর কোনও প্রতিদ্বন্দ্বীই ফ্রেমে নেই।

[ আরও পড়ুন: দুর্গেশগড় আসলে কোথায় জানেন? সন্ধান দিলেন পরিচালক ধ্রুব ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং