BREAKING NEWS

২২  মাঘ  ১৪২৯  সোমবার ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

‘হিন্দু মহাসভার বিরোধিতা করেছিলেন নেতাজি’, দেশনায়কের জন্মদিনে বিজেপিকে নিশানা মমতার

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 23, 2020 3:14 pm|    Updated: January 23, 2020 3:14 pm

Netaji opposed to Hindu Mahasava, says Mamata Banerjee to celebrate his birthday

সংগ্রাম সিংহরায়, শিলিগুড়ি: হিন্দু মহাসভা নিয়ে নেতাজির বক্তব্যকেই হাতিয়ার করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দেশনায়কের মৃত্যু রহস্য উন্মোচনে কেন্দ্রের গড়িমসি নিয়েও তুললেন প্রশ্ন। দার্জিলিংয়ের গিদ্দা পাহাড়ে সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৩তন জন্মদিবস পালনে সাঁড়াশি আক্রমণে কেন্দ্রকে বিঁধলেন মুখ্যমন্ত্রী।

২০১১ সালে রাজ্যে রাজনৈতিক ক্ষমতার পালাবদলের পর রাজ্য সরকারের তরফে নেতাজির জন্মদিন পালিত হয় পাহাড়ে। এবারও তার ব্যতিক্রম হল না। দার্জিলিংয়ের গিদ্দা পাহাড়ে দেশনায়কের মূর্তিতে মাল্যদান করে জন্মদিন পালন করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সুভাষচন্দ্র বসু সম্পর্কে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বর্তমানের অস্থির রাজনৈতিক পরিস্থিতির সঙ্গে তার তুলনা টানলেন। বললেন, ”নেতাজি ধর্মনিরপেক্ষতার পক্ষে সওয়াল করতেন। দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষমতা ছিল নেতাজির। যাঁর এই ক্ষমতা থাকে, তিনিই প্রকৃত দেশনেতা। তিনি হিন্দু মহাসভার ঘোর বিরোধী ছিলেন।”

[আরও পড়ুন: জিলেটিন স্টিক নিয়ে খেলতে গিয়ে বিপত্তি, বিস্ফোরণে উড়ল শিশুর হাতের আঙুল]

স্বাধীনতা আন্দোলনের ইতিহাস সম্পর্কে ওয়াকিবহাল সচেতন মানুষমাত্রই জানেন হিন্দু মহাসভা নিয়ে নেতাজির মনোভাব। তিনি শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়কে জানিয়েছিলেন, হিন্দু মহাসভা তৈরি হলে তিনি তাঁর বিরোধিতা করবেন। প্রয়োজনে ভেঙেও দেবেন। দেশবাসী নেতাজির দেখানো পথে চলবে বলে বার্তা দিয়েছেন মমতা। বর্তমানের অস্থির পরিস্থিতি, দেশজুড়ে গৈরিকীকরণের প্রবণতার পরিপ্রেক্ষিতে মুখ্যমন্ত্রী সেই বিষয়টিকেই হাতিয়ার করলেন। বললেন, ”প্রকৃত ধর্মনিরপেক্ষদের যথাযথ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে না। উগ্র হিন্দুত্ববাদের নামে হিন্দু ধর্মের বদনাম করছে বিজেপিই।”

নেতাজির মৃত্যু রহস্য উন্মোচনে ক্ষমতায় এসে প্রশংসনীয় উদ্যোগ নিয়েছিল মোদি সরকার। তাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে থাকা বেশ কয়েকটি ফাইল প্রকাশ করা হয়েছে। কেন্দ্রের আবেদন মেনে সঙ্গে সঙ্গেই রাজ্যের হাতে থাকা নেতাজি সংক্রান্ত যাবতীয় ফাইল প্রকাশ্যে এনেছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারও। সে প্রসঙ্গ টেনে মমতা এই প্রশ্নও তোলেন যে কেন্দ্র কেন সম্পূর্ণ তথ্য প্রকাশ করছে না।

[আরও পড়ুন: ছিঁটেফোঁটা বৃষ্টি-ঘন কুয়াশা, শেষবেলায় খামখেয়ালি আচরণ শীতের]

এদিনও পাহাড়ের রাস্তায় হেঁটে জনসংযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী। রিচমন্ড হিল থেকে প্রায় দু কিলোমিটার হেঁটে তিনি পৌঁছন গিদ্দা পাহাড়ের সামনে চৌরাস্তার মঞ্চে। পথচলতি মানুষের সঙ্গে কথা বলেন, তাঁদের খোঁজখবর নেন। এনআরসি বা CAA’র জন্য আতঙ্কিত না হওয়ার বার্তা দেন। অনুষ্ঠানের পর ফের হেঁটেই ফেরেন রিচমন্ড হিলে। বিকেলে শিলিগুড়ি পৌঁছবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ রাতে উত্তরকন্যায় রাত্রিযাপনের পর শুক্রবার ফিরবেন কলকাতায়।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে