৪ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিকিৎসা করাতে আলিগড়ে এসে গণপিটুনির শিকার হলেন এক মুসলিম দম্পতি। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল উত্তরপ্রদেশের আলিগড়ে। এই ঘটনার পিছনে কট্টর হিন্দুত্ববাদীরা রয়েছে বলে অভিযোগ করেছে আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। গুরুতর জখম অবস্থায় ওই দম্পতিকে স্থানীয় জওহরলাল নেহরু মেডিক্যাল কলেজে ভরতি করা হয়েছে। পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর তদন্ত শুরু হয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি।

[আরও পড়ুন: রুগণ রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের ঋণ টানতে নাজেহাল! বড়সড় ক্ষতির মুখে LIC]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কনৌজ থেকে আলিগড়ে চিকিৎসা করাতে এসেছিলেন ওই দম্পতি। কিন্তু, আলিগড় রেল স্টেশনে ট্রেন থেকে নামার পরেই তাঁদের ঘিরে ধরে বেধড়ক মারধর করে ২০-২৫ জনের একটি দল। স্টেশনে থাকা রেলওয়ে পুলিশের কর্মীরা পুরো ঘটনাটির ভিডিও করলেও সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেনি বলে অভিযোগ। মারধরের পরে ওই দলটি পরে গুরুতর জখম অবস্থায় ওই দম্পতিকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

জখম ওই দম্পতির অভিযোগ, আলিগড় স্টেশনে ট্রেন থেকে নামার পর আচমকা তাঁদের ঘিরে ধরে ২০-২৫ জনের একটি দল। তাদের প্রত্যেকের কাঁধে একই ধরনের গামছা ও বুকে একটি করে পরিচিতিপত্র ঝোলানো ছিল। মুখে কোনও কিছু না বলেই ওই দম্পতিকে প্ল্যাটফর্মে ফেলে বেধড়ক মারধর করে। প্রাণ বাঁচাতে তাঁরা চিৎকার করলেও সাহায্যের জন্য কেউ এগিয়ে আসেনি। বরঁ একটু দূরে দাঁড়িয়ে থাকা পুলিশকর্মীরা পুরো ঘটনাটির ভিডিও তুলছিলেন।

[আরও পড়ুন:‘কোনও ভাষাই জোর করে চাপাতে পারেন না’, অমিত শাহকে কটাক্ষ রজনীকান্তের]

এপ্রসঙ্গে আলিগড় রেল স্টেশনের এক জিআরপি ইনস্পেক্টর বলেন, ‘মৌ-আনন্দবিহার ট্রেনে করে কিছু যাত্রী আলিগড়ে এসেছিলেন। ট্রেনের মধ্যে কোনও ঘটনার প্রেক্ষিতে তাঁদের মধ্যে কয়েকজনের সঙ্গে ওই দম্পতির অশান্তি শুরু হয়েছিল। তার জেরেই স্টেশনে মারামারি হয়। এর ফলে দুজন গুরুতর জখম হয়েছেন। তাঁদের হাসপাতালে ভরতি করার পাশাপাশি অভিযোগ রেকর্ড করা হয়েছে। মামলা দায়ের করে তদন্তও শুরু হয়েছে।’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং