৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নির্দল নয়, মোদির বিরুদ্ধে মহাজোটের প্রার্থী হচ্ছেন বরখাস্ত জওয়ান তেজ বাহাদুর

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 29, 2019 5:17 pm|    Updated: April 29, 2019 5:17 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নিজেই ঘোষণা করেছিলেন আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে নির্দল প্রার্থী হিসেবে লড়বেন বরখাস্ত হওয়া বিএসএফ জওয়ান তেজ বাহাদুর যাদব। তাঁর লক্ষ্য ছিল সেনার অন্দরের দুর্নীতি দূর করে স্বচ্ছতা আনা। সেনা জওয়ানদের প্রতি মোদি সরকারের করা অবিচারের প্রতিবাদ করা। সেই মতো ইতিমধ্যেই বারাণসীতে মনোনয়নও দিয়ে দিয়েছেন তেজবাহাদুর। তাঁর হয়ে প্রচারের জন্য গোটা দেশ থেকে অবসরপ্রাপ্ত সেনা জওয়ানদের একটা বড় অংশও হাজির হয়েছেন বারাণসী ধামে। কিন্তু, নির্দল হিসেবে লড়াইটা তেজ বাহাদুরের পক্ষে বেশ কঠিন হয়ে দাঁড়াচ্ছিল। এবার তাঁর পাশে দাঁড়াল সমাজবাদী পার্টি।

[আরও পড়ুন: মোদি-শাহর বিরুদ্ধে কেন নিষ্ক্রিয় কমিশন? প্রশ্ন তুলে সুপ্রিম কোর্টে কংগ্রেস]

মহাজোটের তরফে বারাণসী থেকে সমাজবাদী পার্টির টিকিটে প্রার্থী হিসেবে নাম ঘোষণা করা হয়েছিল শালিনী যাদবের। সোমবার সেই প্রার্থীপদ প্রত্যাহার করে নিল সপা। অখিলেশ যাদবের পার্টি জানিয়ে দিয়েছে, সমাজবাদী পার্টির সাইকেল প্রতীকেই লড়বেন বরখাস্ত হওয়া বিএসএফ জওয়ান তেজ বাহাদুর। আসলে, মোদির বিরুদ্ধে জনমত গঠনে সেনা আবেগকে কাজে লাগাতে চাইছে সমাজবাদী পার্টি। সেকারণেই, নিজেদের প্রার্থী প্রত্যাহার করে তেজ বাহাদুরকে টিকিট দেওয়ার সিদ্ধান্ত। তাছাড়া বারাণসীতে ইতিমধ্যেই কংগ্রেসের তরফে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে অজয় রাইয়ের নাম। এর ফলে বিরোধী ভোটে ভাগাভাগির ফলে মোদি সুবিধা পেয়ে যেতে পারেন বলে আশঙ্কা করছে মহাজোট। তাই বিচার বিবেচনা করেই নিজেদের প্রার্থী প্রত্যাহার করে মোদির বিরুদ্ধে সবচেয়ে শক্তিশালী প্রার্থী তেজবাহাদুরকেই সমর্থন করছে সপা-বসপা জোট।

[আরও পড়ুন: ‘প্রজ্ঞার বিরুদ্ধে প্রমাণ ছিল, ওকে টিকিট দেওয়া ঠিক হয়নি’, বিজেপিকে তোপ জোটসঙ্গীর]

 

বারাণসীতে দীর্ঘদিন প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর প্রার্থী হওয়া নিয়ে জল্পনা চলছিল। কিন্তু, শেষ পর্যন্ত পিছিয়ে আসে কংগ্রেস। দলের সার্বিক স্বার্থের কথা ভেবে প্রিয়াঙ্কার পরিবর্তে অজয় রাইকে প্রার্থী করা হয়েছে। মনে করা হচ্ছিল, প্রিয়াঙ্কা প্রার্থী হলেও মোদির কেন্দ্রে প্রার্থীপদ প্রত্যাহার করে নেওয়ার সম্ভাবনা ছিল মহাজোটের। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement