BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘বালাসাহেব ঠাকরের নাতি হয়ে নোংরা রাজনীতিতে আমি নেই’, সুশান্ত ইস্যুতে বিজেপিকে তোপ আদিত্যর

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: August 5, 2020 12:21 pm|    Updated: August 5, 2020 12:49 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সুশান্ত ইস্যু নিয়ে রাজনৈতিক চাপানউতোর তুঙ্গে। অভিনেতার মৃত্যুর তদন্ত নিয়ে মহারাষ্ট্র বনাম বিহার পুলিশের কাজিয়া যেন কিছুতেই থামতে চাইছে না! দুই রাজ্যের পুলিশি দ্বন্দ্ব, মুম্বই পুলিশের বিরুদ্ধে বিহার পুলিশকে অসহযোগিতার অভিযোগ, তদুপরি রিয়া চক্রবর্তীর সন্দেহজনক গতিবিধি… সব মিলিয়ে ক্রমশ জটিল হচ্ছে সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) মৃত্যুর তদন্ত। আর এর মাঝেই এই ইস্যুতে নাম জড়ালো ঠাকরে পরিবারের। দিন কয়েক আগে ঘটনার সূত্রপাত অবশ্য টিম কঙ্গনা রানাউতের একটি টুইট ঘিরে। নামোল্লেখ না করেই তোপ দেগেছিলেন ঠাকরে পরিবারের উত্তরসূরীর দিকে। এরপরই অভিযোগ ওঠে যে, মৃত্যুর আগের দিন সুশান্তের বাড়ির পার্টিতে কোনও রাজনীতিকের উপস্থিতি ছিল। তার রেশ ধরেই যথারীতি গোল বাঁধে। এবার সেই বিতর্ক নিয়েই সরব হলেন উদ্ধবপুত্র আদিত্য ঠাকরে (Aaditya Thackeray) । 

আদিত্যর কথায়, মহারাষ্ট্র সরকার যে দক্ষতার সঙ্গে করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলা করছে, তা আসলে বিরোধী শিবিরগুলোর পেটব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর তাই অভিনেতার মৃত্যুটাকে হাতিয়ার বানিয়ে রাজনীতি করছে এরা। আদিত্যর এই মন্তব্য যে গেরুয়া শিবিরকে বিঁধেই, তা বোধহয় আলাদা করে বলার অপেক্ষা রাখে না। কারণ, বিজেপির একাধিক নেতামন্ত্রীদের অভিযোগ, উদ্ধব ঠাকরের সরকার বলিউড মাফিয়াদের আড়াল করার চেষ্টা করছে। উপরন্তু কঙ্গনা নাম না নিলেও পরিষ্কার নিজের টুইটে বলেছিলেন যে, “বিশ্বের সেরা মুখ্যমন্ত্রীর ছেলে, যিনি কিনা করণ জোহরেরও অতি প্রিয় বন্ধু, যাঁকে আদর করে সবাই বেবি পেংগুইন বলে ডাকে, তিনিও সুশান্তের বাড়ির পার্টিতে উপস্থিত ছিলেন।” এরপর আদিত্যর সঙ্গে রিয়া চক্রবর্তীর সম্পর্ক রয়েছে বলেও নানা গুজব শোনা গিয়েছিল। এবার সেসবেই জল ঢাললেন আদিত্য ঠাকরে। পালটা দিতে ছাড়লেন না কঙ্গনা রানাউতও। 

[আরও পড়ুন: ঘর ভেসেছে বানের জলে, জলপাইগুড়ির মহিলাকে বাড়ি বানিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি সোনুর]

আদিত্য সাফ জানিয়ে দিয়েছেন যে, “এই নোংরা রাজনীতিতে আমি নেই। ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে বন্ধু থাকা কোনও অপরাধ নয়! এতদিন চুপ ছিলাম। কিন্তু সংশ্লিষ্ট ইস্যুকে ঘিরে যেভাবে আমাকে এবং ঠাকরে পরিবারের বিরুদ্ধে কদর্য মন্তব্য করা হচ্ছে, তা দেখেই মুখ খুলতে বাধ্য হলাম। আসলে মহারাষ্ট্র সরকারের পারদর্শীতা ওদের কাছে হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই সুশান্তের মৃত্যুটাকে একটা ইস্যু বানিয়ে নোংরা রাজনীতি করছে ওরা।”

পাশাপাশি তিনি এও বলেন যে, “সম্রাট বালাসাহেব ঠাকরে প্রপৌত্র হয়ে আমি কোনও দিনই এরকম কোনও কাজ করব না, যাতে ঠাকরে পরিবার এবং শিবসেনা পার্টির মানহানি হয়।” আদিত্যর এই মন্তব্যের পরই কঙ্গনার মন্তব্য, “তাহলে তোমার বাবাকে বলো সুশান্তের মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত কয়েকটা প্রশ্নের উত্তর দিতে। যেগুলো এখনও ধোঁয়াশাতেই রয়ে গিয়েছে।” 

[আরও পড়ুন: স্বমহিমায় শাহেনশা, ট্রোলের জন্য ফের নেটিজেনদের ‘সবক’ শেখালেন করোনাজয়ী বিগ বি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement