১ কার্তিক  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সরকারি কমিটিতে অনাস্থা সত্ত্বেও দু্র্নীতির নথি পেশ করবেন এসএসসি চাকরিপ্রার্থীরা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 27, 2019 10:40 am|    Updated: March 27, 2019 10:41 am

SSC agitators don't have faith on investigative committee set up by Govt.

দীপঙ্কর মণ্ডল: মাসখানেক হতে চলল ধর্মতলার মেয়ো রোডে এসএসসি চাকরিপ্রার্থীদের অনশন চলছে৷ নিয়োগে দুর্নীতি নিয়ে তাঁদের অভিযোগ খতিয়ে দেখতে সরকারের তরফে ৫ সদস্যের কমিটি তৈরি করা হলেও, জটিলতা অব্যাহতই৷ তার মূল কারণ, সরকারের তৈরি এই কমিটির প্রতি গভীর অনাস্থা অনশনকারীদের৷ তাঁদের মত, যে সরকারি চাকরিতে নিয়োগ নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ উঠছে, সেই সরকারই তৈরি করছে তদন্ত কমিটি৷ তাই তার স্বচ্ছতা, নিরপেক্ষতা নিয়ে বড়সড় সংশয় থাকবেই৷

                               [ আরও পড়ুন:  লাং ফাংশান টেস্ট করছেন চতুর্থ শ্রেণির কর্মী! আতঙ্ক চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতালে]

এসএসসি চাকরিপ্রার্থীদের এত বড় একটা আন্দোলন নিয়ে নড়েচড়ে বসেছে রাজ্যের শিক্ষা দপ্তর৷ দুর্নীতির অভিযোগ খতিয়ে দেখতে ২২ মার্চ তৈরি হয়েছে ৫ সদস্যের কমিটি৷ তার দু’দিনের মধ্যে বিকাশ ভবনে এই কমিটির কাছে গিয়ে অনশনকারীদের লিখিত অভিযোগ করার আহ্বান জানিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী৷ ১৫ দিনের মধ্যে তার জবাব মিলবে বলেও আশ্বাস দিয়েছিলেন৷ কিন্তু দু’দিন কেটে গেলেও কোনও অভিযোগ জমা পড়েনি বলে মঙ্গলবার জানিয়েছেন এসএসসি চেয়ারম্যান সৌমিত্র সরকার, যিনি নিজেও এই কমিটির এক সদস্য৷ তাই এই কমিটির মেয়াদ আরও বাড়ানো হয়েছে৷ বুধবারও কমিটির সদস্যরা থাকবেন বিকাশ ভবনে৷ অপেক্ষা করবেন অভিযোগের ৷

এদিকে অনশনকারীদের যুক্তি, সরকার গঠিত তদন্ত কমিটির উপর কোনও ভরসা নেই তাঁদের৷ তাই তাঁরা সেখানে যাননি৷ তবে দুর্নীতির প্রামাণ্য নথি নিয়ে অনশনকারীদের এক প্রতিনিধিদল বিকাশ ভবনে যাবেন বলে ঠিক হয়েছে৷ তবে কোনও অভিযোগ নয়, অনশনকারীরা বলছেন, তাঁরা সরকারি কমিটির চোখে আঙুল দিয়ে দেখানোর জন্য ওই নথিগুলি তুলে দিতে চান৷ চাকরিপ্রার্থীরা আগেই অভিযোগ জানিয়েছিলেন, এসএসসি-র প্রকাশিত তালিকায় কোনও প্রাপ্ত নম্বর ছিল না৷ মেধাতালিকার পিছনের দিকে থাকা অনেকের চাকরি হয়েছে, অথচ শীর্ষে নাম থাকা সত্ত্বেও আজও নিয়োগপত্র পাননি বহু চাকরিপ্রার্থী৷ আজ বিকাশ ভবনে গিয়ে সেসব নথিই তদন্ত কমিটির হাতে তুলে দিতে চান তাঁরা৷

                                          [ আরও পড়ুন:  কালীঘাটে গণপিটুনির ঘটনায় ছেলের পর এবার গ্রেপ্তার বাবাও]

বুধবার এই অনশন ২৮ তম দিনে পড়ল৷ মেয়ো রোডে প্রেস ক্লাবের সামনে শয়ে শয়ে চাকরিপ্রার্থীর ন্যায্য অধিকারের দাবিতে এই আন্দোলনে তাঁদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন বহু মানুষ৷ মন্দাক্রান্তা সেন, সুবোধ সরকার, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, কবীর সুমন-সহ একাধিক শিল্পী, কবি, সাহিত্যিক, বুদ্ধিজীবীদের একাংশ থেকে শুরু করে রাজ্যের বিরোধী রাজনৈতিক মহলও আন্দোলনের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন৷ রাজ্য সরকার এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে আলাদাভাবে আরজি জানিয়েছেন, যাতে তিনি নিজে এই সমস্যা সমাধান করে আন্দোলনের আঁচ নিভিয়ে দেন৷ তবে সরকারের তরফে তদন্ত কমিটি গঠন করা ছাড়া এখনও পর্যন্ত সে অর্থে কোনও বড় পদক্ষেপ চোখে পড়েনি৷  

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement