৩০ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লোকসভা নির্বাচনে বিশাল জয়ের জন্য ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন জানালেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। মোদি সুনামির জেরে ১৭ তম লোকসভা নির্বাচনের পর আরও একবার একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় ফিরছে বিজেপি। আর এই অভূতপূর্ব সাফল্যের জন্য ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন ইমরান।

বৃহস্পতিবার বিজেপির ক্ষমতায় ফেরার বিষয়টি নিশ্চিত হতেই টুইট করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। জানান, “এই নির্বাচনী সাফল্যের জন্য নরেন্দ্র মোদি, বিজেপি ও তাদের সহযোগীদের অভিনন্দন। আশা করছি দক্ষিণ এশিয়ার শান্তি, উন্নয়ন ও উন্নতির জন্য আমরা একসঙ্গে কাজ করব।”

[আরও পড়ুন-মোদির জয়যাত্রা দেখতে মার্কিন মুলুকে থিয়েটার ভাড়া করলেন ভক্ত]

গত ১১ এপ্রিল থেকে ১৯ মে পর্যন্ত সাত দফায় ১৭তম লোকসভা নির্বাচন সম্পন্ন হয়। বৃহস্পতিবার সকাল আটটা থেকে শুরু হয় ভোটগণনা। কিছুক্ষণ বাদেই পরিষ্কার হয়ে যায় যে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ফের ক্ষমতা ফিরছে বিজেপি। এরপরই বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন জানাতে থাকেন। জয়ের বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার পর টুইট করেন মোদিও। সবকা সাথ ও সবকা বিকাশের সঙ্গে সবকা বিশ্বাস-এর স্লোগানও তোলেন। বলেন, “আমরা একসঙ্গে বৃদ্ধি পাব। একসঙ্গে এগোব। একসঙ্গে শক্তিশালী এহং সম্মিলিত ভারত তৈরি করব।”

[আরও পড়ুন-ভারতের ভোট প্রক্রিয়ার স্বচ্ছতায় নিশ্চিত আমেরিকা, মোদিকে শুভেচ্ছা রাষ্ট্রনেতাদের]

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, জাতীয়তাবাদ, জাতীয় নিরাপত্তাসন্ত্রাসবাদ মোকাবিলার বিষয়ে নরেন্দ্র মোদির অনমনীয় মনোভাবই জয়ের আসল কারিগর। এর ফলেই দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় মানুষে পরিণত হয়েছেন তিনি। অন্যদিকে নরেন্দ্র মোদির প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী রাহুল গান্ধীর প্রতি মানুষ ভরসা রাখতে পারেননি। তাই গান্ধী পরিবারের গড় হিসেবে খ্যাত উত্তরপ্রদেশের আমেঠিতে তাঁকে পরাজিত হতে হয় বিজেপি প্রার্থী স্মৃতি ইরানির কাছে।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামার অবন্তীপোরায় সিআরপিএফ কনভয়ে হামলা। তার পালটা হিসেবে বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইক করে ভারতীয় বায়ুসেনা। এই পরিস্থিতিতে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনার পারদ চড়তে থাকে। যদিও এরই মধ্যে নরেন্দ্র মোদিকেই ফের ভারতের প্রধানমন্ত্রী পদে দেখতে চাই বলে বিতর্ক তৈরি করেছিলেন ইমরান।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং