‘ধর্ষণ করে ফেলে দেয় না, খাবারও জোগায় বলিউড’, বিস্ফোরক মন্তব্য সরোজ খানের

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “এমন তো বাবা আজমের সময় থেকেই চলছে। প্রত্যেকটা মেয়ের উপর কেউ না কেউ হাত দেওয়ার চেষ্টা করে। সরকারের লোকও এমন করে। তোমরা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির লোকের পিছনে পড়ো কেন? ওরা তো অন্তত খাবার জোটানোর পয়সা দেয়। ধর্ষণ করে ফেলে তো দেয় না”- কাস্টিং কাউচ প্রসঙ্গে এমনই বেফাঁস মন্তব্য করে ফেললেন বর্ষীয়ান কোরিওগ্রাফার সরোজ খান।

 

[অমিতাভের কাঠুয়া প্রতিক্রিয়ার সমালোচনা করে পালটা কটাক্ষের শিকার পূজা ভাট]

সিনেমায় কাজ পেতে মহিলাদের প্রভাবশালী ব্যক্তিদের শয্যাসঙ্গিনী হতে হয়। এমন ঘটনা নতুন কিছু নয়। প্রায়ই কাস্টিং কাউচের বিরুদ্ধে মুখ খোলেন অভিনেত্রীরা। কিন্তু এভাবে সংবাদমাধ্যমের সামনে কাস্টিং কাউচের সমালোচনা না করে উলটে প্রায় স্বপক্ষে মন্তব্য করার ঘটনা নজিরবিহীন। মঙ্গলবার একটি সাংবাদিক বৈঠকে মিডিয়াকে আক্রমণ করে সরোজ বলেন, “তুমি কী করতে চাইছো তা তোমার উপরই নির্ভর করছে। তুমি যদি কারও হাতে ব্যবহার হতে না চাও তাহলে তার কাছে যেয়ো না। তোমার কাছে শিল্প আছে, তাই তুমি কেন নিজেকে বিক্রি করবে? সিনেমা জগতের বিরুদ্ধে কিছু বোলো না। বলিউড আমাদের মা-বাবার মতো।” তাঁর বক্তব্য, কোনও শিল্পীকে কেউ কোনও প্রস্তাব দিলে সে তা গ্রহণ করবে কি না তা ঠিক করার সিদ্ধান্ত শিল্পীর নিজের।

 

[দাদাসাহেব ফালকে পেয়ে আপ্লুত রণবীর, শাহিদ ক্রেডিট দিলেন স্ত্রী মীরাকে]

‘চাঁদনি’, ‘তেজাব’, ‘মোহরা’, ‘বাজিগর’, ‘দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে’, ‘হাম দিল দে চুকে সনম’, ‘তাল’ থেকে ‘দেবদাস’- এমন বহু হিট ছবিতে সরোজের নির্দেশনায় নেচেছেন শ্রীদেবী, মাধুরী দীক্ষিত, কাজল, ঐশ্বর্য রাই বচ্চনরা। দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে বলিউডে কোরিওগ্রাফি করছেন ৬৯ বছরের এই নৃত্যশিল্পী। উল্লেখ্য, সম্প্রতি বলিউডে কাস্টিং কাউচ নিয়ে সরব হন কঙ্গনা রানাউত, রাধিকা আপ্টে, কাল্কি কোয়েচলিনরা। চলতি মাসেই কাস্টিং কাউচের শিকার হয়ে প্রযোজকদের বিরুদ্ধে অর্ধনগ্ন হয়ে প্রতিবাদ জানান তেলুগু অভিনেত্রী শ্রী রেড্ডি। ঠিক এই সময়ই সরোজ খানের কাস্টিং কাউচ নিয়ে এহেন মন্তব্যে শোরগোল পড়ে যায়। পরে অবশ্য নিজের বক্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়ে নেন বর্ষীয়ান শিল্পী। তবে সোশ্যাল মিডিয়ার রোষের শিকার হন তিনি।

[দীর্ঘদিনের প্রেম বদলে গেল পরিণয়ে, বান্ধবীর সঙ্গেই গাঁটছড়া বাঁধলেন মিলিন্দ]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *