‘সারাহা’র শিহরণে তিতিবিরক্ত? সব পোস্ট ব্লক করুন এভাবেই

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে ‘সারাহা’র শিহরণ। গোপন কথাটি আর কিছুতেই গোপন রাখার উপায় নেই। রাখতে চাইছেনও না অনেকে। আর সম্পর্কের কিসসা থেকে ঘরের হাঁড়ির কথা ফাঁস হচ্ছে নেটদুনিয়ার খোলা বাজারে। সোশ্যাল মিডিয়ার দেওয়াল জুড়ে গোপনীয়তার লিফলেট টাঙানো। ইচ্ছে না গেলেও চোখ যাবে। তথ্য চুরি যাওয়ার আশঙ্কা আছে। কিন্তু তাতেও ঝড় আটকাচ্ছে না। কাজকর্ম চুলোয় গিয়েছে। ফেসবুকের দেওয়াল জুড়ে শুধু সারাহা আর সারাহা। এ নিয়ে মিম-ঠাট্টারও অভাব নেই, আবার ব্যবহারেও খামতি নেই।

[ কর্মক্ষেত্রে সকলের ‘প্রিয়’ হয়ে উঠতে চান, কী কী করবেন? ]

অনেকে এই ‘গোপন গোপন খেলা’ উপভোগ করছেন। তাতে সন্দেহ নেই। তা যাঁরা আনন্দ পাচ্ছেন তাঁদের তো ঝামেলা মিটেই গেল। কিন্তু যাঁরা এই গোপন চিঠির জ্বালায় অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন তাঁরা কী করবেন? এ তো গোপন অথচ গোপন নয়। হ্যাঁ, প্রেরকের নাম জানা যাচ্ছে না বটে। কিন্তু কে কাকে কী বলছেন, তা দিব্যি লোকে প্রকাশ করছেন। ফলে পুরো বিষয়টি বেশ অস্বস্তিকরও। এর ওর কথা জেনে কী লাভ! কিন্তু এমনই অবস্থা, নিজে খেলার ইচ্ছে না থাকলেও খেলা থেকে দূরে থাকা সম্ভব নয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাকাউন্ট খুললেই তাই একে একে চলে আসছে বিভিন্ন মানুষের ‘সারাহা’র চিঠি। শেষমেশ প্রায় তিতিবিরক্ত অবস্থা সাধারণ ব্যবহারকারীদের। অনেকেই এ জিনিস চান না, কিন্তু পালানোর উপায় নেই। নেটদুনিয়া এমনই এক ফাঁদ।

তোয়ালে না অন্তর্বাস! নয়া ফ্যাশনে তোলপাড় নেটদুনিয়া  ]

কিন্তু সত্যি কি উপায় নেই? চাইলে এ ফাঁদ থেকেও বেরিয়ে আসা যায়। হ্যাঁ, ঠিকই শুনছেন, যদি চান সোশ্যাল মিডিয়ায় আর কোনও সারাহার পোস্ট আসবে না, তবে সে ব্যবস্থা আপনি করে নিতে পারেন নিজেই। কীভাবে করবেন? প্রথমে ক্লিক করুন এই লিংকে। গুগল ক্রোমের জন্য এই এক্সটেনসন বানিয়েছেন অংশুল মিত্তল নামে এক ব্যক্তি। এই এক্সটেনশন ডাউনলোড করলেই, সারাহা সংক্রান্ত সব পোস্ট আপনার নিউজ ফিডে আসা বন্ধ হয়ে যাবে। সারাহার এই শিহরণে তিতিবিরক্ত হয়েই বন্ধুদের সঙ্গে বসে নয়া এক্সটেনসন বানিয়ে ফেলেছেন জয়পুর এনআইটি-র এই প্রাক্তনী। বহু মানুষ তা ডাউনলোড করেছেন। উপকারও পেয়েছেন। তাহলে আপনিই বা আর দেরি করবেন কেন? সারাহায় বিরক্ত হলে উপরের লিঙ্কে ক্লিক করে ফেলুন এখনই।

স্বমেহনে চরম আনন্দ চান? মহিলারা অবশ্যই মাথায় রাখুন এই টিপসগুলি ]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *