দখলে তিনটি পঞ্চায়েত সমিতি, হাওড়ায় আবিরখেলায় মাতলেন তৃণমূল কর্মীরা

সন্দীপ মজুমদার, উলুবেড়িয়া: ভোটের আগেই বিজয় উৎসবে মাতল শাসকদল তৃণমূল৷ মনোনয়ন পর্ব ও স্ক্রুটিনির প্রক্রিয়া শেষ হতে না হতেই হাওড়া জেলার ১৪টি পঞ্চায়েত সমিতির মধ্যে তিনটিতে দখল দিল তৃণমূল৷ এই সমিতির বেশ কিছু আসনে বিরোধী দলগুলি প্রার্থী দিতে পারেনি৷ তাই সংখ্যার নিরিখে তিন সমিতি তৃণমূলের দখলে গিয়েছে।

 মামার আস্থা কংগ্রেসে, তৃণমূলের প্রার্থী হয়ে ভোটের ময়দানে টক্করে ভাগনে ]

জানা গিয়েছে, উদয়নারায়নপুর,  আমতা-১ ও বাগনান-২ পঞ্চায়েত সমিতি দখলে এসেছে তৃণমূলের৷ তৃণমূল সবথেকে বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছে উদয়নারায়নপুর পঞ্চায়েত সমিতিতে। এখানে সমিতির ৩৩টি আসনের মধ্যে তারা ২০টিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়েছেন৷ এখানে তৃণমূল সবকটি আসনে প্রার্থী দিলেও সিপিএম ১২ ও বিজেপি ছ’টি আসনে প্রার্থী দিতে সক্ষম হয়েছে। এর পরে আছে আমতা-১ পঞ্চায়েত সমিতি, যেখানে ৩৮টি আসনের মধ্যে  ২২টি আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়ে গিয়েছে তৃণমূল। এখানে তৃণমূলের পক্ষ থেকে ৪০ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন৷ বিজেপি ও সিপিএমের পক্ষ থেকে ১৫টি করে মনোনয়ন জমা দেওয়া হয়েছে। দু’জন নির্দল প্রার্থীও মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

[রাজ্যের প্রস্তাব মানল কমিশন, পঞ্চায়েত ভোট ১৪ মে]

বাগনান-২ পঞ্চায়েত সমিতির মোট ২১টি আসনের মধ্যে ১২টিতে কোনও প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে না। এখানে তৃণমূলের পক্ষ থেকে সবকটি আসনে প্রার্থী দেওয়া হয়েছে। বিজেপি সাতটি,  সিপিএম পাঁচ, অন্যান্য তিনি ও নির্দল প্রার্থীরা একটি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এই সমিতিটিও তৃণমূল কংগ্রেসের দখলে গিয়েছে। তৃণমূলের এই জয়কে ‘মা মাটি মানুষে’র জয় বলে অভিহিত করেছেন তৃণমূলের হাওড়া গ্রামীণ জেলার সভাপতি পুলক রায়। ভোটে না লড়েই তৃণমূলের একতরফা এই জয়কে ‘গণতন্ত্র হত্যা’ বলে দাবি করেছেন বিজেপির হাওড়া গ্রামীণ জেলার সভাপতি অনুপম মল্লিক৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *