BREAKING NEWS

১৪ কার্তিক  ১৪২৭  শনিবার ৩১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

হাসফাঁস গরমে আপনার যৌনক্ষমতা বাড়াতে পারে এই ফলটি

Published by: Tanujit Das |    Posted: May 18, 2019 9:22 pm|    Updated: May 18, 2019 9:22 pm

An Images

মণিদীপা কর: হাসফাঁস করা গরম, প্যাচপ্যাচে ঘাম…সবের মধ্যেও গ্রীষ্মকে রসে সিক্ত করে রাখে আম। তা সে হিমসাগর হোক বা ল্যাংড়া। গ্রীষ্মের বিভিন্ন পর্যায় বিভিন্ন আমের স্বাদ নিতে বাঙালি পটু। আম তো শুধু জিভের রসনা মেটায় না। সেই সঙ্গে পুষ্টিও জোগায়। সঙ্গে বাড়তি পাওনা অক্ষয় যৌবন, চনমনে যৌন জীবন।আমের সব গুণাবলি সম্পর্কে না জেনেই বাঙালি সে রসে মজলেও চিকিৎসকরা বলছেন, পুরুষের কামন্মোদনা বাড়াতে আমের জুড়ি নেই। যৌন উদ্দীপক হিসাবে আম এতটাই নির্ভরযোগ্য যে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া বিশেষত ভারতের কোথাও কোথাও যৌন জীবনে অক্ষম পুরুষদের চিকিৎসায় আম প্রেসক্রিপশন করা হয়।

[ আরও পড়ুন:  সঙ্গী সাড়া দিচ্ছেন না? বিছানায় ডাকুন এভাবেই…]

প্রবাদে আমের মুকুলকে দেবশিশু ও আমকে অমৃতধারা হিসাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। বলা হয়েছে, ‘আমৃতে’র পুষ্টিগুণে বার্ধক্যেও অটুট থাকবে ‘যৌবন’। এ শুধু সাহিত্য বা প্রবাদ নয়, বিজ্ঞান বলছে আমের প্রতি ফোঁটা রসে ভরপুর থাকে ভিটামিন-ই। তারুণ্য ধরে রাখতে ভিটামিন-ইর ভূমিকা সকলেরই জানা। ত্বকের চমক ও কমনীয়তা ধরে রেখে ভিটামিন-ই বয়সকে বেঁধে রাখে বলে জানলেও, যা জানেন না তা হল এই ভিটামিনের অন্য নাম ‘সেক্স’ ভিটামিন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সেক্স হরমোনের ভারসাম্য রাখাই ভিটামিন-ই’র প্রধান কারসাজি। আর এইভাবেই পুরুষের শুক্রাণুর সংখ্যা ও তার কর্মক্ষমতাকে বাড়াতে সাহায্য করে ফলের রাজা। শুধু পুরুষের যৌন জীবনই নয়, আমের রসে সতেজ হয়ে ওঠে মহিলাদের যৌন আবেদনও। বাড়তে থাকা বয়স, দৈনন্দিন জীবনের উদ্বেগ, কাজের চাপ, সবই হার মানে আমের মাধূর্যের কাছে।

[ আরও পড়ুন: মায়ের জন্য বিশেষ দিন কীভাবে সেলিব্রেট করবেন? রইল কিছু টিপস ]

শুধু তো ভিটামিন-ই নয়। আমে রয়েছে ভিটামিন-এ, ভিটামিন-সি। এই দুই ভিটামিনেরই অ্যান্টি অক্সিডেন্ট প্রভাব রয়েছে। ফলে দেহকোষকে বুড়িয়ে যেতে বাধা দেয় আম। হিমসাগর হোক বা গোলাপখাস, গ্রীষ্মের গোটা মরশুম আমের অমৃত সুধা পান করলে পেট ও মন তো ভরবেই সঙ্গে শরীরের প্রতি কোণায় প্রকাশ পাবে তারুণ্যের জোশ। সেই সঙ্গেই পুরুষ-মহিলা নির্বিশেষ সকলেই যৌন জীবন সম্পর্কে আত্মবিশ্বাসী ও আকর্ষণীয় হয়ে উঠবেন বলে দাবি গবেষকদের। আমের প্রধান উপাদান শর্করা ও ফাইবার হলে অন্য উপাদানের তালিকায় রয়েছে কপার, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড ও ভিটামিন—বি কমপ্লেক্স। ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড
হার্টকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement